শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

স্বাধীনতাবিরোধীদের নাগরিকত্ব বাতিল সংক্রান্ত খবর ভুল

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৬

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ নাগরিকত্ব আইন ২০১৬ কেবিনেট বৈঠকে পাস হয়েছে। এ আইনের মূলকপিতে রাজাকার, যুদ্ধাপরাধী ও তাদের সন্তানদের নাগরিকত্ব বাতিল হবে এমন কোনো বিধি নেই বলে সোমবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।montrisobha
উল্লেখ্য, সোমবার দেশের কয়েকটি শীর্ষ দৈনিকে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতাকারী, সহায়তাকারী এমনকি তাদের সন্তানেরাও বাংলাদেশের নাগরিক হতে পারবেন না এমন বিধান রেখে বাংলাদেশ নাগরিকত্ব আইন-২০১৬ এর খসড়া সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে চূড়ান্ত করা হচ্ছে বলে খবর প্রকাশ করেছিল ।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম নাগরিকত্ব বাতিলের ব্যাখ্যায় বলেন, এসংক্রান্ত বিধান হলো কোনো ব্যক্তি তার বাবা-মা বিদেশি কোনো বাহিনীতে যোগদান করে বা যোগদান ছাড়া বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেন বা যুদ্ধে সহযোগিতা করেন বা বাংলাদেশের সাথে যুদ্ধে লিপ্ত ছিলেন, বাংলাদেশের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেন না, তাহলে তারা নাগরিক হতে পারবেন না।
এছাড়া কোনো ব্যক্তি বিদেশি রাষ্ট্রের প্রতি প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে আনুগত্য প্রকাশ করলে, বিদেশি রাষ্ট্রের কোনো বাহিনীতে যোগদান করে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করলে বা অন্য কোনোভাবে ওই বাহিনীকে সহায়তা করলে, তিনি বাংলাদেশের নাগরিক থাকতে বা হতে পারবেন না।
তবে বিধি দ্বারা যে কোন ব্যক্তি বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পরিত্যাগ করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে তাদের সন্তান নাবালক থাকলে বাবা-মা’র সাথে তাদের সন্তানদেরও নাগরিকত্ব বাতিল হবে।
এদিকে স্বাধীনতাবিরোধী ও তাদের সন্তানরা নাগরিকত্ব হারাচ্ছেন এমন তথ্য দিয়ে দৈনিক ইত্তেফাক ও সমকালে প্রকাশিত খবর সম্পর্কে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, বাংলাদেশ নাগরিকত্ব আইনের খসড়ায় এধরনের কোনো বিষয় নেই।