মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট, ২০১৯

ছারপোকার সঙ্গে হেরে যাচ্ছে মানুষ!

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৬

নিউজ ডেস্ক: ছারপোকা যে কী যন্ত্রণাদায়ক প্রাণী, যাঁরা এর শিকার হয়েছেন—তাঁরা ভালো করেই জানেন। রক্তখেকো ক্ষুদ্র এই প্রাণী মানুষের শরীর থেকে রক্ত শোষণ করে। ছারপোকা থেকে রক্ষা পেতে অনেকে বিষ কিংবা কীটনাশক ব্যবহার করেন। কিন্তু সেই বিষ বা কীটনাশকে ছারপোকা মরছে না! বিপদের কথা হচ্ছে—প্রচলিত বিষ ও কীটনাশকের বিরুদ্ধে বেঁচে থাকার সক্ষমতা বাড়ছে এই প্রাণীটির।

Home-Remedies-For-Bed-Bugs
তার মানে কি ছারপোকার সঙ্গে হেরে যাচ্ছে মানুষ! হাফিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ছারপোকার কামড়ে অসুস্থ হয়ে পড়ার আশঙ্কা না থাকলেও ক্রমাগত কামড় খেলে ত্বকে চুলকানি হতে থাকে। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকেরা বলছেন, মানুষের সঙ্গে ছারপোকার যুদ্ধে ছারপোকারই জয় হচ্ছে। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে ছারপোকা দমন করতে ব্যর্থ হচ্ছে দেশটির সংশ্লিষ্ট বিভাগ।
যুক্তরাষ্ট্রের এক জরিপে দেখা গেছে, দেশটির ওহাইয়ো, নিউজার্সি, মিশিগানসহ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে প্রচলিত বিষে মরছে না ছারপোকা।
ভার্জিনিয়া টেক কলেজ অব এগ্রিকালচার অ্যান্ড লাইফ সায়েন্সেসের গবেষক ট্রয় অ্যান্ডারসন বলেন, এখন দেখা যাচ্ছে ওষুধে-কীটনাশকে ছারপোকা দমন করা যাচ্ছে না।
এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের কেনটাকি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রে ছারপোকার উপদ্রব বেড়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পেস্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাম্প্রতিক জরিপ অনুযায়ী, যেখানে মানুষের যাতায়াত, সেখানেই ছারপোকা। শুধু অ্যাপার্টমেন্ট বা একক পরিবারেই নয়, হোটেল-মোটেল, কলেজ ডরমিটরি, স্টোর, মুভি থিয়েটার, লাইব্রেরি, নার্সিং হোম, অফিস, পাবলিক বাস সবখানেই ছারপোকার উপদ্রব শুরু হয়েছে।
বৃহস্পতিবার ‘মেডিকেল অ্যান্টোমোলজি’ সাময়িকীতে প্রকাশিত গবেষণা নিবন্ধে গবেষক অ্যান্ডারসন ও নিউ মেক্সিকো স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষক আলভেরো রোমেরো লিখেছেন, ছারপোকার ওপর কীটনাশক ছিটানোর পর টিকে যাওয়া ছারপোকার সঙ্গে কীটনাশক না ছড়ানো ছারপোকা নিয়ে গবেষণা করেন তাঁরা। এতে দেখা যায়, যে ছারপোকার ওপর কীটনাশক পড়েছে সে ছারপোকা সহজে মরে না।
প্রশ্ন হচ্ছে—ছারপোকা এত শক্ত হলো কীভাবে? এটি প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া।
গবেষক রোমেরো বলেন, ছারপোকার শরীরের যে জৈব গঠন তাতে কীটনাশক কিংবা অ্যান্টিবায়োটিকসের বিরুদ্ধে লড়াই করে টিকে থাকতে সাহায্য করে। এ ধরনের ছারপোকা মারার ক্ষেত্রে বা উপদ্রব ঠেকাতে গবেষক রোমেরোর পরামর্শ হচ্ছে-বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ। তাপ, ভ্যাকুয়াম পদ্ধতি কিংবা ফাঁদ পেতে মারা ছাড়া কোনো উপায় নেই।উৎসঃ প্রথম আলাে