রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯

বিদেশি ছাত্রীর পোশাক খুলে নিল ভারতীয় জনতা!

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৬

inআন্তর্জাতিক ডেস্ক: হিন্দু পুরাণ মহাভারতে দ্রোপদির বস্ত্রহরণের কথা কম বেশি আমরা সবাই জানি। এবার যেন তারই বাস্তব প্রয়োগ দেখা গেল ভারতের আধুনিক শহর ব্যাঙ্গালোরের রাস্তায়। রোববার তানজানিয়া থেকে আসা এক ছাত্রীকে মারধর করে তার পোশাক খুলে নেয় শহরের উশৃঙ্খল জনতা। ঘটনার দুদিন পর সন্দেহভাজন পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

অল আফ্রিকান স্টুডেন্টস ইউনিয়নের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে এনডিটিভি।

দক্ষিণ ভারতের শহর ব্যাঙ্গালোরে একজন সুদানী শিক্ষার্থীর গাড়ি চাপায় এক ভারতীয় নারীর মৃত্যুর জের ধরে এই ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

রোববার ওই সড়ক দুর্ঘটনার ত্রিশ মিনিট পর তানজানিয়ার ওই ছাত্রী (২১) তার তিন বন্ধুকে নিয়ে সেই এলাকা অতিক্রম করছিল। এ সময় প্রায় দুই শতাধিক মানুষ তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তারা মেয়েটিকে গাড়ি থেকে টেনে হিঁচড়ে বের করে নিয়ে আসে এবং মারধোর করে। এরপরই তার পোশাক খুলে ফেলে। এসময় সে একটি বাসে ওঠে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু বাসযাত্রীরা তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এরপর সে একটি অটোতে উঠার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়।

কয়েকটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এক পথচারী নিজের গায়ের টিশার্ট খুলে মেয়েটির সম্ভ্রম বাঁচানোর চেষ্টা করলে তাকেও মারধোর করে বিক্ষুব্ধ জনতা।

তবে পুলিশ বলছে, তানজানিয়ার সেই ছাত্রীর পরিধেয় জামার উপরের অংশ খুলে ফেলা হলেও তার উপর কোন যৌন হামলা করা হয়নি। এটি রোববার রাতের ঘটনা হলেও এটি প্রকাশ প্রকাশ পেয়েছে দুদিন পর অর্থাৎ মঙ্গলবার।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এক টুইটার বার্তায় এ ঘটনাকে‘ লজ্জাজনক’ হিসেবে উল্লেখ করার পরই পুলিশ ওই পাঁচজনকে আটক করার কথা জানায়।

প্রসঙ্গত, ব্যাঙ্গালোরকে ভারতের সিলিকন ভ্যালি হিসেবে বর্ণনা করা হয়। বিশ্বের অনেক সফটওয়্যার প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ব্যাঙ্গালোর শহরে অবস্থিত। এই শহরে শত-শত বিদেশী শিক্ষার্থী বসবাস করে। ব্যাঙ্গালোরে আফ্রিকার দেশ তানজানিয়ার দেড়শ শিক্ষার্থী রয়েছেন।