মঙ্গলবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

বিএনপির গঠনতন্ত্র সংশোধন হচ্ছে

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৬

bnp Logoবিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, বিএনপির ৬ষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে দলীয় গঠনতন্ত্র সংশোধন হচ্ছে। গঠনতন্ত্র সংশোধনের জন্য আমরা কাউন্সিলরবৃন্দকে মহাসচিব বরাবর এই প্রস্তাব দিতে চিঠি দিয়েছি। কাউন্সিলকে সফল করতে দু’একদিনের মধ্যে একাধিক উপ-কমিটি গঠিত হবে। কমিটির সদস্যরা দলের চেয়ারপারসনকে প্রয়োজনীয় সুপারিশ করবে। এরপর পরবর্তী ধাপগুলো সম্পন্ন হবে।

গতকাল রবিবার রাজধানীর নয়াল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, যুববিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ। রিজভী বলেন, দলের গঠনতন্ত্র সংশোধনের জন্য একটি ধারা আছে, যেখানে কাউন্সিলরবৃন্দ বর্তমান গঠনতন্ত্র সংশোধনের জন্য প্রস্তাব করতে পারে। মহাসচিব বরাবর চিঠি দিয়ে গঠনতন্ত্র সংশোধনের জন্য কাউন্সিলরবৃন্দ প্রস্তাব দিতে পারবে। তাদের দেওয়া প্রস্তাবগুলো গঠনতন্ত্র সংশোধনের উপকমিটিতে যাবে। কমিটির সদস্যরা দলের চেয়ারপারসনকে প্রয়োজনীয় সুপারিশ করবে। এই কাউন্সিলকে সফল করতে একাধিক উপকমিটি চ‚ড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রতিনিয়ত হুমকিতে জাতি আজ আক্রান্ত এমন মন্তব্য করে রিজভী বলেন, নানাভাবে পীড়িত মানুষের প্রতিবাদ কোনোভাবে সহ্য করতে পারেন না বর্তমান প্রধানমন্ত্রী। তার হুমকির মুখে দেশের মানুষের সকল অধিকার আজ নিরুদ্দেশ হয়ে গেছে। ভোট, নির্বাচন, কথাবলা, সমালোচনা ও প্রতিবাদ, লেখা, প্রকাশ করা, চলাফেরা, সংবাদপত্রের স্বাধীনতাসহ মানুষের সকল স্বাধীনতা দ্বিতীয় মেয়াদের শেখ হাসিনার বাকশালে বন্দী হয়েছে। দেশবাসীর প্রতি প্রতিনিয়ত এই হুমকির অর্থ হচ্ছে- একদলীয় দুঃশাসন প্রলম্বিত করার স্বপ্নযাত্রা। তিনি বলেন, জাতির ভাগ্যে যাতে কোনোদিন সুষ্ঠু নির্বাচন না হয়Ñ এজন্য প্রতিটি স্থানীয় সরকার নির্বাচনে শেখ হাসিনার অভিপ্রায়ের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে নির্বাচন কমিশন জাতির অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের ভাগ্যল²ীকে বিতাড়িত করেছেন। এই কমিশনকে গণতন্ত্র ধ্বংসের এক অবিস্মরণীয় ব্যঙ্গচিত্র হিসেবে জনগণ অবলোকন করছে। আসলে এই মোসাহেব নির্বাচন কমিশনের নিকট নির্বাচন সংক্রান্ত অভিযোগ করা আর অরণ্যে রোদন করা একই কথা। জনগণ যদিও সবকিছু দেখছে, শুনছে তথাপিও কমিশনের চরিত্রটা জনগণের নিকট তুলে ধরা উচিত। আমাদের সময়.কম