রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯

আপনার সন্তানকে যেভাবে জানাবেন মানব জীবনের গোপন কথা

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৬

parents

এমনটা একেবারেই যেন না-হয় যে একটি মাত্র কাউন্সেলিং সেশন ডেকে সন্তানকে সামনে বসিয়ে উইল পড়ার ভঙ্গিমায় যৌনশিক্ষা দেওয়া হল। বরং ব্যাপারটাকে ভাঙুন ধীরে ধীরে।

সে দিন আর নেই যে, রবি ঠাকুর কোট করে আপনার বাচ্চার ‘‘এলেম আমি কোথা থেকে’’-মার্কা প্রশ্নের উত্তর দেবেন। টিভি সিরিয়াল, আর ইন্টারনেটবাজির কল্যাণে বাচ্চা বেদম সেয়ানা ইদানীং। সে কিন্তু সব জেনে-বুঝেও প্রশ্ন তুলতে পারে মানবজীবনের গূহ্য দিকগুলিকে নিয়ে। তা ছাড়া ‘সঙ অফ ইনোসেন্স’-এর ব্যাপারটাকে একদম উড়িয়ে দেবেন, তাও সম্ভব নয়। পারিবারিক পরিসরে যৌথ টিভিচর্চার কালে নরনারীর ইন্টিমেট লীলা দেখে যদি বাড়ির খুদে সদস্যটি প্রশ্ন তোলে— উহারা কী করিতেছে, তা হলে আজও কি আপনি নিরুত্তর থাকবেন? নাকি স্মার্টলি উত্তর দেবেন তার যাবতীয় কৌতূহলের?

‘প্ল্যানড পেরেন্টহুড’ নামের একটি সংস্থা এবং নিউ ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর লাতিনো অ্যাডোলেসেন্ট অ্যান্ড ফ্যামিলি হেল্‌থ একটি সার্ভে করে হাজারেরও বেশি প্রাপ্তবয়স্কের উপরে। ৮২ শতাংশ বাবা-মা জানিয়েছেন, তাঁরা তাঁদের টিন-এজ সন্তানের সঙ্গে যৌনতা সম্পর্কে কথা বলেন। কিন্তু এই সার্ভে থেকেই এমন কিছু কমিউনিকেশন গ্যাপের কথা জানা গিয়েছে, যা বেশ সমস্যাজনক।
৯৪ শতাংশ বাবা-মা জানিয়েছেন তাঁরা বোঝান বা না-বোঝান, তাঁদের সন্তানরা নিজে থেকেই গর্ভনিরোধক ব্যবহার করে। খুব কম সংখ্যক বাবা-মা-ই বলেছেন তাঁরা জন্মনিয়ন্ত্রণ নিয়ে ছেলে-মেয়ের সঙ্গে খোলাখুলি আলোচনা করেছেন। কিন্তু সময় তো আর থেমে নেই। জুনিয়র হাই স্কুলের শিক্ষার্থীরাও এখন স্বচ্ছন্দ যৌনজীবনে অভ্যস্ত। বাব-মা জানেনও না কী ঘটে চলেছে তলায় চলায়— জানিয়েছেন লোরেইন মিচেল নামের জনৈক সেক্স থেরাপিস্ট।
কোন বয়স থেকে শুরু করা যায় এই কথোপকথন? আর এক সেক্স থেরাপিস্ট ক্যারল ক্লার্ক জানিয়েছেন, তেমন কোনও বাঁধাধারা ব্যাপার নেই যে খুব ছোট থেকেই নিয়ম করে এ ধরনের কথাবার্তা চালু করতে হবে। পাঁচ বছরের নীচে শিশুরা নিজেদের দেহকে স্পর্শ করে যৌন আনন্দ লাভ করে। সেটা আমাদের মনে রাখা দরকার।

এমনটা একেবারেই যেন না-হয় যে একটি মাত্র কাউন্সেলিং সেশন ডেকে সন্তানকে সামনে বসিয়ে উইল পড়ার ভঙ্গিমায় যৌনশিক্ষা দেওয়া হল। বরং ব্যাপারটাকে ভাঙুন ধীরে ধীরে, কিস্তিতে কিস্তিতে। তাদের জানান, যৌনতা জীবনের একটি স্বাভাবিক দিক। শরীরের বিভিন্ন প্রত্যঙ্গের নাম থেকে শুরু করে ধাপে ধাপে পৌঁছন যৌনতা সংক্রান্ত আলোচনায়। এখানে কোনও ছেলেমানুষি করবেন না। কোনও টার্মকে বিকৃত করবেন না।
বয়ঃসন্ধির জন্য সন্তানকে প্রস্তুত রাখুন। তাদের দেহের সম্ভাব্য পরিবর্তনগুলিকে আগাম জানিয়ে দিন। পারলে ইমোশনাল পরিবর্তনগুলোকেও জানান। তবে সব আলোচনায় যৌনতাকে টেনে আনবেন না। প্রসঙ্গ এলে তার সদ্ব্যবহার করুন।