সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

মেক-আপ নিয়ে যে ৭টি ভুল করেন মহিলারা,জেনে নিন…

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৬

makeupপ্রসাধনের জিনিস বাজারে অনেকই রয়েছে। কিন্তু আপনার জন্য প্রয়োজন ঠিক কী? সাজতে বসে অনেক সময়েই অনেক কিছু মাথায় থাকে না। নিজের অজান্তে একাধিক ভুল করে ফেলেন মেয়েরা।
কী ভুল করেন, জেনে নিন…
আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে সব নারীই কম-বেশি দেখে নেন নিজেকে কেমন দেখাচ্ছে। সাজতে বসলেও কে-ই ইচ্ছে করে নিজেকে অসুন্দর করে তোলেন। কিন্তু জানেন কী, প্রসাধনের ক্ষেত্রে মহিলারা অনেকেই না-জেনে অনেক ভুল করে থাকেন। আপাতভাবে নিজেকে সুন্দর মনে হলেও কিছু বিষয় মাথায় না-রাখলে মেক-আপ পুরো‌টাই ‘মেড-আপ’ হিসেবে ধরা দেয় অন্যের চোখে।
১। অনেকেই দীর্ঘস্থায়ী লিপস্টিক পছন্দ করেন। কিন্তু লিপস্টিককে দীর্ঘস্থায়ী করার জন্য বারংবার লিপস্টিক ঘষার দরকার নেই। উঠে যাওয়া লিপস্টিকের উপরে আবারও কালার ঘষলে দেখতে খুবই খারাপ লাগে। প্রয়োজনে আগে ঠোঁটের উপরে বেস বা কনসিলার লাগিয়ে তারপরে লিপস্টিক পড়ুন। তাতে দেখতেও ভাল লাগবে এবং কালারও দীর্ঘস্থায়ী হবে।
২। মেক-আপ করার সময়ে মহিলারা যতটা যত্ন নিয়ে ফাউন্ডেশন, লিপস্টিক বা কাজল নিয়ে মাথা ঘামান, তার চেয়ে তুলনামূলক কম ভাবেন ভ্রূ-এর মেক-আপ নিয়ে। কিন্তু মনে রাখবেন যতই সুন্দর করে সাজুন না কেন, আই-ভ্রূ যথাযথ না-হলে মেক-আপ পরিপূর্ণ হবে না।
৩। আই মেক-আপের ক্ষেত্রে অনেকেই কাজল এবং আই লাইনারের উপরে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। কিন্তু চোখের মেক-আপের সঙ্গে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হল মাস্কারা। চোখে পাতার মেক-আপটি না সারলে সুন্দর চোখ আপনি কোনওভাবেই পাবেন না।
৪। বেস বা ফাউন্ডেশন লাগানোর ক্ষেত্রে প্রথম যে বিষয়টি মাথায় রাখা প্রয়োজন, তা হল কখনওই নিজের অরিজিনাল স্কিন টোনের থেকে এক ধাপের বেশি টোন কিনবেন না। ত্বকের উজ্জ্বলতা আপনি ফাউন্ডেশন থেকে পেতেই পারেন। কিন্তু অরিজিনাল স্কিন টোনের থেকে দুই-তিন টোন উপরের বেস লাগালে তার ফল ভয়াবহ। মাথায় রাখবেন, উজ্জ্বল রঙের জন্য ফাউন্ডেশন ব্যবহার করা বোকামি। মূলত স্কিন টোনকে নিখুঁত করে তোলাই এর কাজ।
৫। সব সময়ে বেসটা ভালভাবে ব্লেন্ড করবেন। বিশেষ করে গলা এবং বুকের সঙ্গে ব্লেন্ড করাটা খুবই জরুরি। না-হলে শুধু মুখটুকু উজ্জ্বল থাকে যা দেখতে খুব খারাপ লাগে। একই ভাবে হাতের উন্মুক্ত অংশেও হালকা ফাউন্ডেশন প্রয়োগ করা উচিত।
৬। নেলপলিশ উঠে গেলে তাড়াহুড়োর সময়ে তার উপরেই আরেক কোট চাপিয়ে দেবেন না। আপনার চোখে ঠিক লাগলেও অনেকের চোখেও এগুলো ধরা পড়ে এবং আপনার ইমেজ ক্ষতিগ্রস্থ হয়। সবসময়ে রিমুভার দিয়ে পুরোটা তুলে আবার নেলপলিশ পরবেন।
৭। চোখের মেক-আপ এবং ঠোঁটের কালারের মধ্যে একটা ভারসাম্য রক্ষা করার চেষ্টা করবেন। খুব গাঢ় রঙের আই শ্যাডো পড়লে সাধারণত হালকা রঙের বা ন্যুড লিপ কালার রাখার চেষ্টা করবেন। উল্টোটাও করতে পারেন। অর্থাৎ, গাঢ় রঙের লিপস্টিক পড়লে আই শ্যাডো একটু হালকা রাখবেন। যদিও পোশাকের সঙ্গে সবসময়েই পরিবর্তনশীল থাকে মেক-আপ।

উৎস: এবেলা