সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

মাহিয়া মাহি জানালেন তার লাইফ স্টাইলের কথা

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৬

বিনােদন ডেস্ক: অনেক দিনের ঝুট ঝামেলা কাটিয়ে বাংলা চলচ্চিত্র বর্তমানে কিছুটা স্থিতিশীল পথে এগুচ্ছে। তার পেছনে যেসব নায়িকার অবদান রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম হালের মাহিয়া মাহি। জাজ মাল্টিমিডিয়ার হাত ধরে ২০১২ সালে ঢাকাই চলচ্চিত্রে পা রেখেছিলেন এই উচ্ছ্বল তরুণী। এরপর দর্শকদের উপহার দিয়েছেন একের পর এক দর্শক নন্দিত ছবি এবং একই সাথে পরিচালক-প্রযোজকদের মুখে ফুটিয়েছেন স্বস্তির হাসি।ssscNxH

চিত্রনায়িকা পূর্ণিমার পরে মাহি একমাত্র নায়িকা যার নামের জোরে অনেক ছবি ব্যবসায়িক সফলতা পেয়েছে। যার প্রমাণ বিগ বাজেটের অগ্নি ছবির দুটি কিস্তি। চলচ্চিত্র বোদ্ধারা মনে করেন বর্তমানে মাহি বাংলাদেশের শীর্ষস্থান দখল করা অভিনেত্রী। জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা এই অগ্নিকন্যা।

ভীষণ ফ্যাশন সচেতন অভিনেত্রী মাহি। সময় ভেদে ভিন্ন পোশাকে নিজেকে মোড়ান। তবে সব সময়ই গুরুত্ব পায় আরামদায়ক পোশাক। বাসায় ঢিলেঢালা পোশাক পরেন। বাইরে পশ্চিমা ঢঙের পোশাক বেশি পরা হয় মাহির। মাহি বলেন, `কেনাকাটা কিংবা যেকোনো প্রয়োজনে বাসা থেকে বের হলে জিনস, টি-শার্ট বা শার্ট পরে বের হই। আমার কাছে এটি বেশ আরামদায়ক মনে হয়।` দেশের বাইরে ঘুরতে বা শুটিংয়ে গেলে ভ্রমণের সময় হাফপ্যান্ট, টি-শার্টের মতো পশ্চিমা পোশাকই পরেন বড় পর্দার এই তারকা। দেশীয় কোনো অনুষ্ঠানে শাড়ি বেছে নেন তিনি। শাড়ির সঙ্গে মিলিয়ে কপালে লাল টিপ পরেন। মাহি বলেন, `ছোটবেলা থেকেই লাল টিপ আমার পছন্দ। তবে নিজের মুখের সাথে মানিয়ে সবসময় ছোট টিপ ব্যবহার করে থাকি।`

দেশি অনুষ্ঠানে পরেন দেশি শাড়ি এবং পায়ের জন্য স্লিপারে বেশি আরাম পান মাহি। তবে জিনসের সঙ্গে নাইকি ও অ্যাডিডাস ব্র্যান্ডের কেডস পছন্দ। গয়নার প্রতি কোনোই দুর্বলতা নেই তার। হাতে একটি প্লাটিনামের চুড়ি পরেন। আর হাতের আঙুলে সব সময়ই থাকে রুবি পাথরের আংটি।

সুগন্ধির প্রতি অনেকটাই দুর্বলতা আছে মাহির। বিভিন্ন নামীদামি ব্র্যান্ডের সুগন্ধি যেমন পছন্দ, তেমনি আতরও তার বিশেষ পছন্দ। মাহি বলেন, `আতরের ঘ্রাণটা অন্য রকম মনে হয়। সেই ছোটবেলা থেকেই আমার পছন্দ।` আর সুগন্ধির মধ্যে গিভেন্সি ও ভিক্টোরিয়া সিক্রেটসের সুগন্ধি তার ভালো লাগে।

মাহির প্রিয় খাবার গরুর কালো ভুনা। বললেন `খাবারের তালিকায় এটি পেলে সব ভুলে যাই। অন্য খাবার জলাঞ্জলি দিয়ে গরুর কালো ভুনো পেট পুরে খাই।` আর সেটা নিজের হাতেই রান্না করতে পছন্দ করেন তিনি। তবে মায়ের হাতে শুঁটকি রান্না তার খুব প্রিয়। মাহির পছন্দের খাবারের তালিকায় তেহারীর কথা না বললেই নয়। তেহারী খেতে রাতবিরাতে বন্ধুরা মিলে প্রায়ই পুরান ঢাকার শাঁখারী বাজারে ঢুঁ মারেন।

শুটিংয়ের জন্য প্রতিদিনই মুখে ভারী মেকাপ নিতে হয় মাহির। আর এ কারণে দরকার হয় ত্বকের বাড়তি যত্নেরও। মাহি বলেন, `ত্বকের বাড়তি যত্ন নিতে আমি নিয়মিত মুখে টমেটো লাগাই।` শুটিংয়ে চুলের ওপরও কম ধকল যায় না। তাই যত্ন নিতে নিয়মিতই চুলে তিলের তেল ব্যবহার করেন তিনি। কারণ মাহি মনে করেন তিলের তেল ব্যবহারে চুল শক্ত থাকে এবং চুলের পুষ্টি বাড়ে।

আলো-ছায়া দিয়ে নিজের ঘর সাজিয়েছেন মাহি। কাঠ, মাটি বা চীনামাটির তৈরি জিনিসপত্র দিয়ে আলোর বিভিন্ন শেড বানিয়ে সাজিয়ে রেখেছেন। নিজ হাতেই এই আলো-ছায়ার আবহ তৈরি করেন তিনি। আবার বিভিন্ন ধরনের ঝাড়বাতিও তার পছন্দ। মাহির প্রিয় ঋতু শীতকাল। এ সময় প্রায়ই গাড়ি নিয়ে ঢাকার বাইরে দূরের রাস্তায় নিজেই ড্রাইভ করে বেরিয়ে পড়েন। কখনো সিলেট, কখনো বান্দরবানের পাহাড়ঘেরা অরণ্যে ঘুরতে চলে যান। কখনো কখনো গাড়ি রেখে বান্দরবানের পাহাড়ি রাস্তায় যাত্রীবাহী বাসের ছাদে দলবল মিলে উঠে পড়েন আবার কোন সময় বন্ধুরা মিলে পানিতে হইহুল্লোড় দিয়ে সাঁতরে বেড়ান। আর দেশের বাইরে কাশ্মীর, সুইজারল্যান্ড, থাইল্যন্ডের পাতায়ায় বারবার উড়ে যেতে চান মাহি।
উৎস…….জাগো নিউজ