শুক্রবার, ৪ অক্টোবর, ২০১৯

‘বাড্ডায় হেডকোয়ার্টার, মোহাম্মদপুরে আনসারুল্লাহর বোমা তৈরির কারখানা’

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৬

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর মোহাম্মদপুরে নবোদয় হাউজিংয়ে জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের হেডকোয়ার্টার হিসেবে চিহ্নিত বাসা থেকে পাঁচ ধরনের বিস্ফোরক উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) বোমা নিষ্ক্রিয়করণ টিম ও কাউন্টার টেরোরিজম টিমের সদস্যরা সেখানে কাজ করছেন।

ডিএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মনিরুল ইসলাম জানান, মোহাম্মপুরে যে বিস্ফোরক সামগ্রী পাওয়া গেছে সেগুলো বহুতল ভবন উড়িয়ে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের (ডিপিডিসি) প্রকৌশলী (আদাবর থানা) সোহেল রানা জানান, বোমা নিষ্ক্রিয়করণের সময় নিরাপত্তার স্বার্থে ওই এলাকার বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ রাখা হয়েছে।

2e56eb305a3ffb91ac2fa7ad8cf18c74--2
উল্লেখ্য, জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে মোহাম্মদপুরের ঢাকা উদ্যান বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন নবোদয় হাউজিংয়ের ২৮ নম্বর বাসায় শুক্রবার অভিযান চালায় ডিবি। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে অভিযান শুরু হয়। এ ঘটনায় এ পর্যন্ত সন্দেহভাজন ১৯ জনকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। তবে তাদের নাম-ঠিকানা এখনও জানা যায়নি। ডিবি সূত্রে জানা গেছে, মোহাম্মদপুরের এ বাসাটিতে জঙ্গিরা প্রশিক্ষণ নিতেন এবং বোমা তৈরি করতেন। এ বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা রাজধানীর উত্তর বাড্ডার সাতারকুলে জঙ্গিদের চাপাতির কোপে গোয়েন্দা পুলিশের এক পরিদর্শক আহত হন। এ হামলার ঘটনায় বাড্ডা থেকে দুজনকে আটক করে পুলিশ। তারা হচ্ছেন কামাল আর হিরন।

রাত ১২টার দিকে বাড্ডায় অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করে ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মুনিরুল ইসলাম বলেন, আটককৃতরা আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য। তাদের আস্তানা থেকে ধারালো অস্ত্র, বিভিন্ন ধরনের বই উদ্ধার করা হয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আরও বলেন, আটক হওয়া কামালের দেওয়া তথ্যমতে মোহাম্মদপুরের নবোদয় হাউজিংয়ের ওই বাসায় অভিযান শুরু করে ডিবি পুলিশ। বাড্ডা হচ্ছে আনসারুল্লাহ বাহিনীর প্রধান কার্যালয় আর মোহাম্মদপুর হচ্ছে তাদের বিস্ফোরক বানানোর কারখানা। ওই বাসাটি জঙ্গিরা প্রশিক্ষণ ও বোমা তৈরি কাজে ব্যবহার করে আসছে।