মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট, ২০১৯

সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক নেওয়া দক্ষিণী ৮ আইটেমকন্যা

SONALISOMOY.COM
ডিসেম্বর ৫, ২০১৬
news-image

শাহিদুল ইসলাম : বলিউডে আইটেম গানের প্রচলন নতুন কিছু নয়। তবে এ ক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই ভারতের দক্ষিণী সিনেমাও। আইটেম গানবিহীন দক্ষিণী সিনেমা এখন কল্পনাও করা যায় না।  আর দর্শকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে দক্ষিণী সিনেমার নির্মাতারাও সিনেমায় আইটেম গান নিয়ম করেই রাখেন। দক্ষিণী সিনেমার আইটেম গানে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক নেওয়া আট আইটেমকন্যা নিয়ে সাজানো হয়েছে এই প্রতিবেদন।

 

তামান্না ভাটিয়া : দুধে আলতা গায়ের রঙ বলতে যা বোঝায় দক্ষিণী অভিনেত্রী তামান্না ভাটিয়া ঠিক তেমনি। এ জন্য তাকে ‘মিল্ক বিউটি’ নামেও ডাকা হয়। অভিনয় গুণে ইতোমধ্যে ভক্তদের মনে জায়গা করে নিলেও সিনেমার আইটেম গানে নেচে দর্শক হৃদয়ে শিহরণ জাগাতে জুড়ি নেই তামান্নার।  প্রতিটি সিনেমার আইটেম গানে নাচার জন্য এই লাস্যময়ী অভিনেত্রী নেন ১ কোটি ১০ লাখ রুপি।

 

কাজল আগারওয়াল : ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী কাজল আগারওয়াল। দক্ষিণী সিনেমার মাধ্যমে পরিচিত পেলেও বলিউড অভিনেত্রী হিসেবেও রয়েছে তার জনপ্রিয়তা।  সাধারণত সিনেমায় রোমান্টিক এবং শান্তশিষ্ট স্বভাবের মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি।  তবে খোলস ছেড়ে এবার আইটেম গানে হাজির হয়েছেন কাজল আগারওয়াল।

 

প্রথমবারের মতো ‘জনতা গ্যারেজ’ সিনেমায় ‘পাক্কা লোকাল’ শিরোনামের গানে আইটেমকন্যা হিসেবে হাজির হয়েছেন তিনি। কাজল আগারওয়াল আইটেম গানে পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন ৫০ লাখ রুপি। তবে শোনা যাচ্ছে, এই আইটেম গানটির জন্য বেশ মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক নিয়েছেন এই অভিনেত্রী।  এছাড়া জানা গেছে, এ পর্যন্ত তামিল সিনেমায় সবচেয়ে ব্যয়বহুল আইটেম গান এটি।

 

অঞ্জলি :  অঞ্জলি তেলেগু অভিনেত্রী পরিচিত। টানাটানা চোখের আবেদনময়ী এই অভিনেত্রী বলিউডে ভাগ্য যাচাইয়ের জন্য মুম্বাইয়ে পাড়ি জমিয়েছেন। আইটেম গানে কোমর দুলিয়ে দর্শক হৃদয়ে শিহরণ জাগাতে জুড়ি নে্ই এই অভিনেত্রীর। সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক নেওয়া আইটেম কন্যাদের তালিকায় এই অভিনেত্রীও রয়েছেন। তিনি প্রতিটি আইটেম গানের জন্য ৪৫ লাখ রুপি নিয়ে থাকেন।

 

শ্রুতি হাসান : দক্ষিণী সুপারস্টার শ্রুতি হাসান।  বলিউডেও বাজিমাত করেছেন নজরকাড়া অভিনয় আর শরীরী সৌন্দর্য্যে। এ পর্যন্ত দুটি আইটেম গানে কোমর দুলিয়েছেন এই অভিনেত্রী তিনি। প্রতিটি আইটেম গানের জন্য ৪০ লাখ রুপি নেন শ্রুতি।

 

চার্মি কৌর : হিন্দি সিনেমা ‘আর রাজকুমার’র জনপ্রিয় গান ‘গান্ধি ভাট’ দেখেছেন অনেকে।  প্রভু দেবা পরিচালিত ‘আর…রাজকুমার’ সিনেমায় ‘গান্ধি ভাট’ গানে শহীদ কাপুরের সঙ্গে জনপ্রিয় গামছা ড্যান্স দিতে দেখা যায় নবাগত এই অভিনেত্রীকে।  ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন হলেও এরই মধ্যে আইটেম গানে বেশ চড়া দাম হাকিয়েছেন তিনি। প্রতিটি আইটেম গানের জন্য তিনি নিচ্ছেন ৪০ লাখ রুপি।

 

প্রভাতি মেল্টন : আমেরিকায় জন্ম নেওয়া প্রভাতি মেল্টন তামিল সিনেমার  নবাগত অভিনেত্রী। তবে ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন হলেও শরীরী আবেদন আর নজরকাড়া গ্ল্যামার দিয়ে অল্প সময়ের মধ্যে হয়ে উঠেছেন জনপ্রিয় আইটেমকন্যা।  সম্প্রতি তামিল-তেলেগু সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক মহেশ বাবু অভিনীত ‘ডোকুডু’ সিনেমার একটি আইটেম গানের জন্য ৩৫ লাখ  রুপি নিয়েছেন তিনি।

 

হামশা নন্দিনী : তামিল-তেলেগু সিনেমার পেশাদার আইটেমকন্যা তিনি। অভিনয়ে খুব একটা পারদর্শী না হয়েও শুধু আইটেম গানে কোমর দুলিয়ে দর্শক হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন এই অভিনেত্রী। প্রতিটি আইটেম গানের জন্য তিনি ৩০ লাখ রুপির মতো নিয়ে থাকেন।

 

মুমাইথ খান : আইটেম গানে মুমাইথ মানেই অসামান্য প্রাণশক্তি ও দুষ্টু নাচের নিত্য-নতুন মুদ্রা। পাকিস্তানে জন্ম নেওয়া তামিল-তেলেগু সিনেমার সবচেয়ে পুরাতন আইটেমকন্যা তিনি। ‘মুন্নাভাই এমবিবিএস’ সিনেমার সুপাররহিট আইটেম গান ‘মরনে সে পেহলে জিনা সিখলে’ দিয়ে জনপ্রিয়তা পান তিনি। এরপর ‘হালচাল’ সিনেমার ‘লুট গ্যায়ে’ গানটিও বেশ হিট হয়েছিল।  সর্বশেষ আলোড়ন তুলেছেন ‘রাউড়ি রাঠোর’ সিনেমার ‘প্রীতম পেয়ারে’ গানটি। যদিও তার ক্যারিয়ারে ভাটি নেমেছে তারপরও প্রতিটি আইটেম গানের জন্য তিনি ২৫ লাখ রুপি নিয়ে থাকেন।