মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭

‘ভালবাসা’ বাড়াতে যা বলা প্রয়োজন!

SONALISOMOY.COM
ডিসেম্বর ৯, ২০১৬
news-image

কথাতেই প্রেম হয়। এই কথা দিয়েই মনের মানুষের মন জয় করা সম্ভব।

চোখে দেখার প্রেম টেকে না, একে অপরের সঙ্গে কথা বলায় যে প্রেম টেকে, সেই প্রেমই সবচেয়ে বেশি স্থায়ী হয়। তাই যখন প্রেমিক বা প্রেমিকার একে অপরের সঙ্গে কথা বলছেন, তখন কী কথা বলবেন, সেটা ভাল করে একবার হলেও ভেবে নেওয়া দরকার। না হলে এলোমেলো কথায় উল্টে দু’‌জনের দূরত্ব বাড়তে পারে, ঝগড়াও হতে পারে। তাই কী কথা বলে ভালবাসা বাড়াতে একবার জেনে নিন।

১। অতীত-

আপনার ছোটবেলা নিয়ে কথা বলা কিন্তু খুব দরকার। একটি সম্পর্কে মানুষ একে অপরকে নিজের কথা যতটা জানতে পারবে, ততই ভাল হবে। তাই আপনিও নিজের ছোটবেলা থেকে বেড়ে ওঠার অভ্যাসটা নিয়ে আপনার সঙ্গীর সঙ্গে কথা বলুন। আর তার কাছ থেকেও জানতে চান। কোন ধরণের অভ্যাস, পরিবেশে বেড়ে উঠেছেন তিনি। ভবিষ্যতে সেই অভ্যাসের ফলে অসুবিধা হবে কিনা, সবই একবারে বুঝতে পারবেন।

২। সাবেকের গুণগান-

আপনার এই সম্পর্কের আগে হয়ত একাধিক সম্পর্ক ছিল। সেগুলি নিয়ে বেশি লাফালাফি না করলেও হবে। সেই সম্পর্কে খারাপ যেমন ছিল, ভাল নিশ্চয়ই ছিল। কিন্তু সেই ভাল নিয়ে বেশি কথা বললে বর্তমান সম্পর্ক খারাপ হতে পারে। যতটুকু না বললেই নয়, বলুন, বাকিটুকু ছেড়েদিন। এতে সুস্থ থাকবে সম্পর্ক।

৩। ভালোলাগা, খারাপ লাগা-

জীবেনর নানা সময়ে নানা রকম পরিস্থিতি আসে। জেনে নিন একে অপরের কাছে কার, কী ভালো লাগে। খাবার, পোষাক, রঙ ইত্যাদিতো আছেই, সেই সঙ্গে মানসিক দিক থেকে ঠিক, কী ভাল লাগে কার, সেটা কথা বললেই বোঝা যায়। আপনার আচার ব্যবহার, মত আপনার সঙ্গীর পছন্দ কিনা। তাতে লাভ হবে আপনাদেরই।

৪। ভয় ও নিরাপত্তাহীনতা-

দুজনের মধ্যে খোলাখুলি কথা বলাটা খুব দরকার। আপনার ভয় ও নিরাপত্তহীনতার কারণ যে সমস্ত অভ্যাস, সেগুলিও নিজেদর মধ্যে আলোচনা করে নেওয়া দরকার। না হলে ভবিষ্যতে এ নিয়ে সমস্যা হতে পারে। কে বলতে পারে, এগুলি নিয়ে কথা বলতে বলতে হযত আপনার সব সমস্যাই মিটে গেল।

৫। ভবিষ্যৎ-

এই বিষয় নিয়ে কথা বলতে একেবারেই পিছপা হবেন না। এগুলি নিয়ে পরে আলোচনা হবে, এমনটাও ভাববেন না। এটি জরুরি বষয়, কথা বলে নিন। যাদে ভবিষ্যতে এ নিয়ে ঝামেলা না হয়।

এ জাতীয় আরও খবর