মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট, ২০১৯

দিয়াজের লাশের ফের ময়নাতদন্ত, আশাবাদী’ মা

SONALISOMOY.COM
ডিসেম্বর ১১, ২০১৬
news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক: আত্মহত‌্যা, না হত‌্যা- এ প্রশ্ন ওঠায় আদালতের নির্দেশে কবর থেকে ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর লাশ তুলে আবারও ময়নাতদন্ত করেছেন চিকিৎসকরা।

রোববার বিকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সহকারী অধ‌্যাপক সোহেল মাহমুদ সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, তারা ‘আঘাতের চিহ্ন’ পেয়েছেন, তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাবেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং ভিসেরা প্রতিবেদন পাওয়ার পর।

দিয়াজের মা জাহেদা আমিন চৌধুরী ঢাকা মেডিকেলে সাংবাদিকদের বলেছেন, চট্টগ্রামে প্রথম ময়নাতদন্তে আঘাতের কোনো চিহ্নের কথা ছিল ন। এবার প্রকৃত ঘটনা বেরিয়ে আসবে বলে তিনি আশা করছেন।

প্রথম ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে দিয়াজের আত্মহত্যার কথা এলেও তা প্রত‌্যাখ‌্যান করে ইতোমধ‌্যে একটি মামলা করেছেন দিয়াজের মা।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি দিয়াজ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক ছিলেন। গত ২০ নভেম্বর রাতে বিশ্ববিদ‌্যালয় এলাকার বাসায় ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়।

ঢাকা মেডিকেলে দ্বিতীয় দফা ময়নাতদন্তের পর ডা. সোহেল মাহমুদ বলেন, “আমরা তিন সদস‌্যের মেডিকেল বোর্ড ময়নাতদন্ত শেষে করেছি। যা পেয়েছি তা পর্যালোচনা করব এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করব। যারা প্রথম ময়নাতদন্ত করেছেন এবং ওই ঘটনায় যারা সাক্ষী আছেন, তাদের সাথে কথা বলে আমরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেব।”

তিনি জানান, দিয়াজের ভিসেরা, দাঁত ও গলার টিস‌্যুর হিস্টোপ‌্যাথলজি পরীক্ষা হবে। ওই প্রতিবেদন আসার আগেই তারা চট্টগ্রামে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাবেন।

প্রথম ময়নাতদন্তে আত্মহত‌্যার কথা বলা হলেও পরিবারের দাবি এটা হত‌্যাকাণ্ড- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে সোহেল মাহমুদ বলেন, “আমরা আঘাতের চিহ্ন পেয়েছি। তবে এখন আমরা কিছুই বলব না। ঘটনাস্থল দেখে আসার পর প্রতিবেদন দেব।”

মর্গের বাইরে উপস্থিত দিয়াজের মা বলেন, “এবার ডাক্তার আঘাতের চিহ্ন পাওয়ার কথা বলেছেন। আমি আশাবাদী, এবার ময়নাতদন্তে সঠিক তথ‌্য আসবে, প্রমাণিত হবে যে আমার ছেলেক হত‌্যা করা হয়েছে।”

দিয়াজের বড় বোন ও ভগ্নিপতিও এ সময় ঢাকা মেডিকেলের মর্গের বাইরে উপস্থিত ছিলেন।