রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯

সাকিবকে রেখে দিল কলকাতা, মোস্তাফিজকে হায়দরাবাদ

SONALISOMOY.COM
ডিসেম্বর ১৮, ২০১৬
news-image
অনলাইন ডেস্ক আইপিএলের নতুন মৌসুমেও কলকাতা নাইট রাইডার্সে অপরিহার্য সাকিব আল হাসান। ভারতের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট আইপিএলের দশম মৌসুম শুরুর আগে দলগুলো একের পর তারকা খেলোয়াড়দের ছেড়ে দিচ্ছে। বিশেষ করে বিদেশিদের। কলকাতাও অনেককেই ছেড়ে দিয়েছে দল থেকে। তবে বাংলাদেশের সেরা অলরাউন্ডারের ওপর আস্থা ধরে রেখেছে তারা। রেখে দিয়েছে সাকিবকে। এদিকে ‘কাটার মাস্টার’ মোস্তাফিজুর রহমানকে রেখে দিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

গতবার ১ কোটি ৪০ লাখ রুপিতে মোস্তাফিজকে কিনেছিল হায়দরাবাদ। প্রথম আসরেই চমকে দিয়েছিলেন মোস্তাফিজ। আর ২০১১ সাল থেকে কেকেআরের হয়ে খেলেন সাকিব। প্রথমবার নিলামে ওঠার পর থেকে আর তাঁকে ছাড়েনি কলকাতা। সাকিব এখন কলকাতার বাঙালি খেলোয়াড়দেরও আইকন। সাকিব ছাড়া বাংলার এই এই দলে বাঙালি খেলোয়াড় ​আর কেউ নেই!
দলগুলোকে খেলোয়াড় ছাড়ার জন্য ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। এই সময়ের মধ্যে বিভিন্ন দল ৪০ জন ক্রিকেটারকে ছেড়ে দিয়েছে। ইংল্যান্ডের কেভিন পিটারসেন-এউইন মরগান আর দক্ষিণ আফ্রিকার ডেল স্টেইন-মরনে মরকেলের মতো তারকারাও আছেন এর মধ্যে। মহেন্দ্র সিং ধোনি আর রবিচন্দ্রন অশ্বিনের মতো তারকা খেলোয়াড়দের নিয়েও গত মৌসুমটা ভালো কাটেনি পুনের। পিটারসেনের সঙ্গে ভারতের টেস্ট পেসার ইশান্ত শর্মা, অলরাউন্ডার ইরফান পাঠানকে ছেড়ে দিয়েছে দলটি। স্টেইন খেলতেন গুজরাট লায়নসে।
মরকেলের দল ছিল কলকাতা। টুর্নামেন্টের দুই বারের চ্যাম্পিয়নরা ছেড়ে দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলরাউন্ডার জেসন হোল্ডারকেও। কিন্তু সাকিবের সঙ্গে পাঁচ বছরের বন্ধনটা অটুট রেখেছে তারা। ২০১১ সালে সাকিবের আইপিএল অভিষেক কলকাতা দিয়েই। সেই থেকে কলকাতার হয়ে ৪২টি ম্যাচ খেলেছেন। ২১.৬০ গড়ে করেছেন ৪৯৭ রান, ২৪.৮৮ গড়ে নিয়েছেন ৪৩ উইকেট।
প্রথমবারের মতো গত বছর আইপিএল খেলতে গিয়ে মোস্তাফিজ সবার নজর কেড়েছেন কার্যকর বোলিং দিয়ে। হায়দরাবাদকে চ্যাম্পিয়ন করতে ২৪.৭৬ গড়ে নিয়েছিলেন ১৭ উইকেট। হয়েছিলেন সে আসরের টুর্নামেন্ট সেরা উদীয়মান ক্রিকেটার। সূত্র: জি নিউজ।