বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৯

শেষ সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্পের জন্য ওবামার পরামর্শ

SONALISOMOY.COM
জানুয়ারি ১৯, ২০১৭
news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
বিদায়ী প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ‘এককভাবে কোনো সিদ্ধান্ত না নিতে’ তার উত্তরসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পকে পরামর্শ দিয়েছেন।

স্থানীয় সময় বুধবার হোয়াইট হাউসে শেষ সংবাদ সম্মেলন করেন ওবামা। দীর্ঘ সময় প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে চলা সংবাদ সম্মেলনে বিদীয় কমান্ডার ইন-চিফ তার সফলতা-ব্যর্থতার বিষয়ে নিজের ভাবনা ও অনুভূতি এবং ভবিষ্যৎ প্রত্যাশা সম্পর্কে আলোচনা করেন।

ট্রাম্পকে আর কোন কোন বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছেন, সে সম্পর্কে বিস্তারিত উল্লেখ না করলেও ওবামা বলেন, উপদেষ্টাদের কাছ থেকে তাকে সবকিছু ভালোভাবে জেনেবুঝে নেওয়ার উপদেশ দিয়েছেন তিনি। ওবামা বলেন, উপদেষ্টাদের মাধ্যমে তার অনেক ধারণা সঠিক কাঠামোয় আসছে। উপদেষ্টাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করতে বলা হয়েছে তাকে।

ওবামা আরো বলেন, ‘আমি তাকে এমন কিছুই বলেছি। বলেছি, এটি এত বড় কাজ, যা আপনি নিজে নিজে করতে পারবেন না।’

বিদায়ী প্রেসিডেন্টের শেষ সংবাদ সম্মেলনে আরো গুরুত্ব পেয়েছে উইকিলিকসের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক গোপন তথ্য ফাঁসকারী চেলসি ম্যানিংয়ের সাজার মেয়াদ কমানো, রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা, জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর এবং গণমাধ্যমের ভূমিকাসহ আরো কিছু বিষয়।

চেলসি ম্যানিংয়ের সাজার মেয়াদ কমানোর বিষয়ে ওবামা বলেন, তাকে ‘বিচার দেওয়া হয়েছে’। তাকে কঠোর সাজা দেওয়া হয়েছিল। তিনি বলেন, যারা রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ও গোপনীয় তথ্য ফাঁস করতে চাইছে, তারা এ ধরনের কাজের ফলে শাস্তির ভয় করবে না বলে যে কথা বলা হচ্ছে, তা ঠিক নয় বলে আমি মনে করি।

মঙ্গলবার বারাক ওবামা চেলসি ম্যানিংয়ের সাজার মেয়াদ কমিয়ে দেন। ২০১০ সালে উইকিলিকসের কাছে তথ্য ফাঁসের জন্য তৃতীয় লিঙ্গের ম্যানিংকে ৩৫ বছরের জেল দেন আদালত। তার সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০৪৫ সালে। কিন্তু তা ২৯ বছর কমিয়ে দিয়েছেন ওবামা। ফলে আগামী ১৭ মে তিনি কারামুক্ত হবেন।

ওবামার এ পদক্ষেপে অপরাধীদের মধ্যে ‘ভুল বার্তা’ ছড়িয়ে পড়তে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন রিপাবলিকান নেতারা। হাউস স্পিকার পল রায়ান বলেছেন, ‘ভয়ংকর দৃষ্টান্ত।’

ইসরায়েলের আহ্বানে সাড়া দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তর না করার পক্ষে মত দিয়েছেন ওবামা। তিনি বলেছেন, এককভাবে এ কাজ করলে ‘বিস্ফেরক’ ফলাফল হবে। এ ছাড়া ‘দুই রাষ্ট্র সমাধান’ নিয়েও তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেন। ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনকে দুটি স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিয়ে দীর্ঘদিনের সংকট মেটাতে চায় আন্তর্জাতিক মহল।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সাইবার হামলা চালানোর শাস্তি হিসেবে রাশিয়ার ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে ট্রাম্প শর্তমূলক পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেন। ট্রাম্প বলেন, পরমাণু অস্ত্র কমালে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিতে পারেন তিনি। ওবামা এর বিরোধিতা করে বলেছেন, পরমাণু আলোচনা থেকে নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি আলাদা করে রাখতে। একটি বিনিময়ে আরেকটি না করতে বলেছেন ওবামা।

আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে ওবামা কথা বলেন। তাদের দুই মেয়ে সাশা ও মালিয়া ট্রাম্পের বিজয়ে হতাশ কি না জানতে চাইলে ওবামা বলেন, তারা হতাশ হয়ে পড়েছিল।