বুধবার, ২১ আগস্ট, ২০১৯

লাকসামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ২০০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

SONALISOMOY.COM
জানুয়ারি ২১, ২০১৭
news-image
লাকসাম প্রতিনিধি:

কুমিল্লার লাকসামের দৌলতগঞ্জ বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে তিনটি মার্কেটে দেড় শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভস্মিভূত হয়ে প্রায় ২০০ কোটি টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।

শুক্রবার রাত পৌর শহরের দৌলতগঞ্জ বাজারে মনোহরীপট্টি, স্বর্নপট্টি ও কাপড়িয়া পট্টিতে অগ্নিকাণ্ডে এ ঘটনা ঘটে। অগ্নি নির্বাপণে লাকসাম ফায়ার সার্ভিসসহ ৮টি ইউনিট দীর্ঘ ৫ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুণ নিয়ন্ত্রণে আনে।

সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক স্থানীয় এমপিসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উদ্ধার কাজ তদারকি করেন।

ফায়ার সার্ভিস ও ব্যবসায়ী সূত্রে জানা যায়, ওইদিন রাত সোয়া ১১ টায় লাকসাম পৌর শহরের দৌলতগঞ্জ বাজারের মনোহরী পট্টির একটি দোকান থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। হঠাৎ বিকট শব্দ হওয়ার পর মনোহরী পট্টির একটি দোকানে আগুন দেখতে পায় পথচারীরা। তারা কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই আগুন মুহুর্তের মধ্যে পুরো টিনশেড দোকানগুলোতে ছড়িয়ে পড়তে থাকে। খবর পেয়ে লাকসাম ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। কিন্তু মনোহরী পট্টি ও কাপড় পট্টিতে প্লাস্টিক, আতশবাজি এবং কাপড়ের গুদামে আগুন ছড়িয়ে পড়ায় ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। পরবর্তীতে কুমিল্লা সদর, সদর দক্ষিণ, চৌদ্দগ্রাম, বরুড়া, নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি ও চাঁদপুরের হাজিগঞ্জসহ ৭টি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে কাজ শুরু করে। এসময় ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে আগুন নিয়ন্ত্রণে যোগ দেয় স্থানীয় জনগণ ও ব্যবসায়ীরা।

পরে ফায়ার সার্ভিসের ৮ ইউনিটের প্রায় পাঁচ ঘণ্টা চেষ্টার পর ভোর রাতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় জুয়েলারি মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি ও গণেশ জুয়েলারির মালিক সুভাষ বণিক এবং কাপড়িয়া পট্টির ডক্টর ক্লথ স্টোরের মালিক আবদুল কুদ্দুছ প্রাথমিকভাবে প্রায় দুই’শ কোটি টাকা ক্ষয়ক্ষতির কথা জানিয়েছেন।

অগ্নিকাণ্ডের সংবাদ পেয়ে স্থানীয় এমপি মো. তাজুল ইসলাম, জেলা সহকারী পুলিশ সুপার আবদুল্লা আল-মামুন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন ,লাকসাম পৌর মেয়র প্রফেসর আবুল খায়ের, সহকারী কমিশনার (ভূমি) তামান্না মাহমুদ, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লা আল-মাহফুজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

লাকসাম ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মোবারক আলী বলেন, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লা আল-মাহফুজ বলেন, অগ্নিকাণ্ডে দৌলতগঞ্জ বাজারে মনোহরীপট্টি, স্বর্নপট্টি ও কাপড়িয়া পট্টিতে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। তবে এখন পর্যান্ত আগুন কোথায় থেকে লেগেছে তা নিশ্চিত হওয়া যায় নি।