মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট, ২০১৯

ড. ইউনূসের কর–সুবিধা তদন্ত হওয়া উচিত: অর্থমন্ত্রী

SONALISOMOY.COM
জানুয়ারি ২৬, ২০১৭
news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ড. মুহাম্মদ ইউনূস গ্রামীণ ব্যাংকের নামে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে যে কর–সুবিধা নিয়েছেন, তা তদন্ত হওয়া উচিত বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল বুধবার সংসদে ড. ইউনূসের সম্পত্তির বিষয়ে কথা বলেছেন। এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী কী ভাবছেন, তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটা একটি কঠিন বিষয়। তবে ড. মুহাম্মদ ইউনূস গ্রামীণ ব্যাংকের নামে অনেক কর–সুবিধা নিয়েছেন। এগুলো তদন্ত হওয়া উচিত।’

গতকাল সংসদে গ্রামীণ ব্যাংক ও ড. ইউনূসের প্রসঙ্গ তুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘তিনি ট্যাক্সও দেন না। তাঁর প্রচুর টাকা আছে। কোথা থেকে এল এই টাকা? এটা নিয়ে আমি কিছু বলতে চাইনি। এটা অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব। তিনি ব্যবস্থা নেবেন। তিনি মামলা করে রেখে দিয়েছেন। ট্যাক্স না দিয়ে ভালোই চলছেন। কিন্তু আমাদের ক্ষেত্রে পান থেকে চুন খসলে বিশাল আকারে দেখানো হয়।’

আজ সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে ‘তথ্যপ্রযুক্তি খাতের রপ্তানি সম্ভাবনা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি-বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, অর্থসচিব মাহবুব আহমেদ, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) পক্ষ থেকে একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেওয়া হয়। এ সময় অর্থমন্ত্রীর কাছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ২০ শতাংশ নগদ সহায়তা চেয়েছে বেসিস। অর্থমন্ত্রী নগদ সহায়তার বিষয়ে কোনো আশ্বাস দেননি।

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সহজ ব্যাংকিং ব্যবস্থা ও উদ্যোক্তাদের জন্য ইক্যুইটি এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ ফান্ড (ইইএফ) বর্তমানে বন্ধ আছে। অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক ইইএফ আবার শুরু করার বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেন। এর জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘শুরু করা যেতে পারে।’ তবে এ বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।