রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯

শেষ হচ্ছে তিন মোড়লের রাজত্ব!

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৭
news-image

ক্রীড়া প্রতিবেদক:

বছর তিনেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সর্বময় ক্ষমতা ভোগ করেছে তিন মোড়ল দেশ—ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। আইসিসির এবারের সভায় সেই মোড়লদের আধিপত্য শেষ হতে যাচ্ছে বলে একটা গুঞ্জন ছিল। হলোও তা-ই। দুবাইয়ে তিন দিনব্যাপী সভা শেষে আইসিসির পক্ষ থেকে কাল এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘বিগ-থ্রি’ নীতি বাতিল করে নতুন একটি সুষম অর্থনৈতিক বণ্টনপদ্ধতিতে যাওয়ার নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে আইসিসির সংবিধানে কিছু সংশোধনী এনে তা পাস করা হয়েছে। এই সিদ্ধান্তগুলোর মধ্য দিয়েই কার্যত শেষ হচ্ছে আইসিসিতে তিন মোড়লের রাজত্ব।

সুষম বণ্টননীতিটা কী রকম হবে, তা অবশ্য চূড়ান্ত হয়নি। আরও ঘষামাজা করে আগামী এপ্রিলে আইসিসির পরবর্তী সভায় সেগুলো চূড়ান্ত করা হবে। একই রকম সুযোগ রাখা হয়েছে সংবিধান সংশোধনীর ক্ষেত্রেও। যেখানে বলা হয়েছে, সুশাসনই হবে আইসিসির মূল লক্ষ্য। এ ছাড়া আরও দুটি দেশকে (আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ড) আইসিসির পূর্ণ সদস্য করার ব্যাপারটাও বিবেচনাধীন রাখা হয়েছে।

নতুন অর্থ বণ্টননীতি ও সংবিধান সংশোধনী প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। ক্রিকইনফোর প্রতিবেদনে অবশ্য বলা হয়েছে, ভারতের পাশাপাশি শ্রীলঙ্কাও নতুন অর্থ বণ্টননীতির বিপক্ষে ভোট দিয়েছে। ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল জিম্বাবুয়ে। অন্য সব সদস্যদেশ পক্ষে ভোট দিয়েছে। বিপক্ষে ভোট দেওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে বিসিসিআই প্রতিনিধি বিক্রম লামায়ে দাবি করেছেন, তাঁরা ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে মাত্র ৩০ জানুয়ারি দায়িত্ব পেয়েছেন বলে এ প্রস্তাব সম্পর্কে বিস্তারিত বুঝে ওঠার সময় পাননি।

দ্বিস্তরের টেস্টলিগ, ১৩দলের ওয়ানডে লিগ

আইসিসির সভায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ অবকাঠামো ও দ্বিপক্ষীয় সিরিজগুলোর ধরন কেমন হবে, সে বিষয়ে কিছু সিদ্ধান্ত হয়েছে। দ্বিস্তরের টেস্ট লিগ আয়োজনের প্রস্তাবে সবুজসংকেত দিয়েছে প্রধান নির্বাহীদের কমিটি। যে প্রস্তাব অনুযায়ী, টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা নয়টি দল দুই বছর মেয়াদি লিগ খেলবে নিজেদের মধ্যে। এ ছাড়া র‌্যাঙ্কিংয়ের নিচের তিনটি দলও সুযোগ পাবে বাকি দলগুলোর সঙ্গে টেস্ট ম্যাচ খেলার। সে ক্ষেত্রে এই মুহূর্তে টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের ১০ নম্বরে থাকা জিম্বাবুয়ের সঙ্গে টেস্ট খেলার সুযোগ পেতে পারে আয়ারল্যান্ড ও আফগানিস্তান।

এ ছাড়া ১৩টি দল নিয়ে তিন বছর মেয়াদি একটি ওয়ানডে লিগের প্রস্তাবেও সম্মতি দিয়েছে প্রধান নির্বাহীদের কমিটি। যে ওয়ানডে লিগের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে নির্ধারিত হবে ২০২৩ বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা। আঞ্চলিকভাবে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট করার কথা ভাবা হচ্ছে। যে টুর্নামেন্টগুলো দিয়ে নির্ধারিত হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতাও।

এই প্রস্তাবগুলোকে ভিত্তি ধরেই আরও বিস্তারিত অবকাঠামো করা হবে, সেই অনুযায়ী সূচি করা হবে। ধারণা করা হচ্ছে, এপ্রিলে আইসিসির পরবর্তী সভায়ই এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত পাওয়া যাবে। আইসিসি, ক্রিকইনফো