বুধবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

বাগমারায় মাদ্রাসার অফিসসহকারীকে পিটিয়ে জখম করলেন শিক্ষক

SONALISOMOY.COM
ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৭
news-image

বাগমারা প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাগমারার কর্ণিপাড়া-সাদোপাড়া দাখিল মাদ্রাসার অফিসসহকারী আবদুর রশিদকে (৪৫) পিটিয়ে জখম করেছেন একই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক। রক্তাক্ত অবস্থায় আহত অফিসসহকারীকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এই নিয়ে পাল্টা পাল্টি অভিযোগ করেছেন উভয় পক্ষ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা শিক্ষকেরা জানান, সোমবার সকালে মাদ্রাসার অফিস সহকারী আবদুর রশিদ ও সহকারী শিক্ষক মাহাবুর রহমানের মধ্যে বাকবিতণ্ডা বাধে। এক পর্যায়ে শিক্ষক কাঠের রোলার দিয়ে অফিসসহকারীকে পিটিয়ে জখম করেন। এতে তাঁর নাক ও মুখ ফেটে যায়। মাদ্রাসার অন্য শিক্ষক-কর্মচারীরা ঘটনাস্থলে এসে আহত অবস্থায় আবদুর রশিদকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

আহত অফিস সহকারী অভিযোগ করেন, মাদ্রাসার কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র শিক্ষক মাহাবুর রহমানের কাছে রয়েছে। তিনি সেগুলো নিজের কাছে রেখে হয়রানী করছেন। সেগুলো ফেরত চাইলে তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে তাঁর ওপর হামলা চালিয়েছেন।
তবে শিক্ষক মাহাবুর রহমান এ অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, মাদ্রাসার একছাত্রীর নাম উপবৃত্তির তালিকাভূক্ত করা নিয়ে তাকে হয়রানী করছিলেন অফিসসহকারী। এর প্রতিবাদ করলে তিনিই প্রথমে হামলার চেষ্টা করেন। এসময় প্রতিহত করতে গিয়ে তিনি আহত হয়েছেন।

মাদ্রাসার সুপারিনটেনডেন্ট শামসুদ্দিন জানান, ঘটনার সময় তিনি পরীক্ষাকেন্দ্রে ছিলেন। বিষয়টি নিয়ে প্রতিষ্ঠানে বসে সুরাহা করা হবে।
মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আবদুর রশিদ মোল্লাহ জানান, তিনি ঘটনাটি শুনেছেন। এই বিষয়ে উভয় পক্ষের কাছ থেকে শোনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। স্থানীয় লোকজন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকদের এভাবে মারামারি করা ঠিক হয়নি।

বাগমারা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আসাদুজ্জামান জানান, এই ঘটনায় এখনো কেউ অভিযোগ করেনি, করলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।