শনিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৯

পীরের খুনী পীর!

SONALISOMOY.COM
মার্চ ১৫, ২০১৭
 দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুরের বোচাগঞ্জে পীর ফরহাদ হোসেন চৌধুরী এবং তাঁর নারী মুরিদ রূপালী বেগমকে হত্যার ঘটনায় কুড়িগ্রাম থেকে সন্দেহভাজন কথিত অপর এক পীরকে আটক করেছে ভূরুঙ্গামারী থানার পুলিশ। তাঁর নাম ইছহাক আলী (৫৭)।

আজ বুধবার ভোরে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার সীমান্তবর্তী পাথরডুবি ইউনিয়নের দক্ষিণ পাথরডুবি গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাঁকে আটক করা হয়। ফরহাদ হাসান চৌধুরী তাঁর মুরিদ ছিলেন।

ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাপস চন্দ্র পণ্ডিত জানান, গতকাল দিবাগত রাত তিনটার দিকে ইছহাক আলীকে আটক করে কুড়িগ্রাম সদর থানায় পাঠানো হয়।

কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার মেহেদুল করিম জানান, দিনাজপুর পুলিশের নির্দেশনায় ইছহাককে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে দিনাজপুর পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

১৩ মার্চ রাতে বোচাগঞ্জ উপজেলার দৌলা গ্রামে কথিত পীর ফরহাদ হোসেন চৌধুরী (৬০) এবং তাঁর নারী মুরিদ রূপালী বেগমকে (১৮) দুর্বৃত্তরা গলা কেটে এবং পরে গুলি করে হত্যা করে।

রূপালী বেগম (২২) বোচাগঞ্জ এলাকার হাশের আলীর মেয়ে ছিলেন। হাশের আলী বলেন, তিনি গরিব মানুষ। রূপালীকে লালন-পালন করতেন ফরহাদ হোসেন চৌধুরী। ফরহাদের পরিবারের সদস্যরা থাকেন দিনাজপুর শহরের বাড়িতে। ফরহাদ মাঝেমধ্যে বোচাগঞ্জে নিজের তৈরি খানকায় থাকতেন।