শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ঢাকায় বিস্ফোরণে নিহত ১ : আইএসের দায় স্বীকার

SONALISOMOY.COM
মার্চ ২৫, ২০১৭
news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রাজধানীতে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর গোলচত্বর এলাকায় পুলিশের তল্লাশিচৌকির কাছে গতকাল রাতে বোমা বিস্ফোরণে এক ব্যক্তি নিহত হন। ঘটনাস্থলের চারপাশ কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী l ছবি: প্রথম আলো
রাজধানীতে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর গোলচত্বর এলাকায় পুলিশের তল্লাশিচৌকির কাছে গতকাল রাতে বোমা বিস্ফোরণে এক ব্যক্তি নিহত হন। ঘটনাস্থলের চারপাশ কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী l ছবি: প্রথম আলো
সিলেটে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরুর ১৬ ঘণ্টার মাথায় গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় বিমানবন্দর সড়কের গোলচত্বরে পুলিশের একটি তল্লাশিচৌকির কাছে বোমা বিস্ফোরণে এক ব্যক্তি নিহত হন। আশকোনায় র্যাবের ব্যারাকে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলার এক সপ্তাহের মাথায় এ ঘটনা ঘটল।
পুলিশ বলছে, সন্ধ্যা সাতটার দিকে এ বিস্ফোরণ ঘটে। নিহত ব্যক্তির পেট ও কোমর ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। পুলিশের ধারণা, ওই ব্যক্তির পেটে বোমা বাঁধা ছিল। রাতে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত তাঁর পরিচয় মেলেনি। এতে আর কেউ হতাহত হননি। এই ঘটনার পরপরই হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মূল সড়ক থেকে বিমানবন্দর এলাকায় ঢোকার পথ থেকেই নিরাপত্তা জোরদারে আরও পদক্ষেপ নেওয়া হয়।
গতকালের এই ঘটনাকে ‘আত্মঘাতী বোমা হামলা’ দাবি করে এর দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট বা আইএস। এই গোষ্ঠীর কথিত বার্তা সংস্থা ‘আমাক’ এই খবর দিয়েছে বলে জানিয়েছে সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ।
অবশ্য রাত পৌনে নয়টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ‘এটি হামলা নয়। লোকটি ট্রাভেল ব্যাগ নিয়ে ফুটপাত ধরে যাচ্ছিল। পুলিশের চেকপোস্টের কিছুটা দূরে থাকতেই লোকটির সঙ্গে থাকা বোমার বিস্ফোরণ ঘটে এবং ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।’
পুলিশের চেকপোস্ট এড়াতে অতিসতর্কতা অবলম্বন করতে গিয়ে এ বিস্ফোরণ ঘটতে পারে বলে মনে করছেন পুলিশ কমিশনার। তিনি বলেন, ‘লোকটি বোমা বহন করে কোথাও নেওয়ার চেষ্টা করছিল। তার বয়স আনুমানিক ৩০-৩২ বছর। জিনসের প্যান্ট ও ফুলহাতা শার্ট পরা ছিল। তার পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। তার কাছে একটি ট্রলিব্যাগ ছিল।’
এর আগে ১৭ মার্চ গতকালের ঘটনাস্থলের এক-দেড় শ গজ দূরে র্যাবের ব্যারাকে আত্মঘাতী হামলা হয়। ওই ঘটনায়ও আইএস দায় স্বীকার করে। তবে বাংলাদেশ সরকার শুরু থেকেই আইএসের দায় স্বীকারকে নাকচ করে দিয়ে আসছে।
গতকালের ঘটনাস্থলের কাছাকাছি পুলিশের তল্লাশিচৌকি ছাড়াও বিমানবন্দর পুলিশ ফাঁড়ি, সহকারী কমিশনার (ট্রাফিক) ও ট্রাফিকের পেট্রল ইন্সপেক্টরের কার্যালয় অবস্থিত। সহকারী কমিশনারের (ট্রাফিক) কার্যালয়ে ছিলেন আনসার সদস্য বিল্লাল হোসেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, সাতটা-সোয়া সাতটার দিকে হঠাৎ বিস্ফোরণের শব্দ শোনেন। বেরিয়ে দেখেন এক ব্যক্তি পড়ে আছেন রাস্তার পাশে। অদূরে রাস্তার পাশে একটি ট্রলিব্যাগ পড়ে আছে।
পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল গিয়ে ওই ট্রলিব্যাগ পরীক্ষা করে তিনটি বোমা পায়। রাত পৌনে ১১টার দিকে ওই বোমা তিনটি নিষ্ক্রিয় করে তারা। এতে বোমার স্প্লিন্টার বিদ্ধ হয়ে আশপাশের তিন রেস্তোরাঁকর্মী ও এক পথচারী আহত হন। বোমার আওয়াজে অজ্ঞান হয়ে পড়েন এক মাদ্রাসাছাত্র। বোমার স্প্লিন্টারে কয়েকটি গাড়ির কাচও ভেঙে যায়। মধ্যরাতের পর নিহত যুবকের লাশ ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে নেয় পুলিশ।