রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯

আতিয়া মহলে আরও জঙ্গি মৃত পড়ে আছে

SONALISOMOY.COM
মার্চ ২৬, ২০১৭
news-image

 সোনালী সময় ডেক্স

সিলেট মহানগরের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়িতে জঙ্গি আস্তানা ‘আতিয়া মহলে’ চালানো অপারেশন টোয়াইলাইট কাল নাগাদ শেষ হতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘টোয়াইলাইটে দুই জঙ্গি নিহত হয়েছে। তবে ভেতরে আরও জঙ্গি মৃত পড়ে আছে। আর জীবিত আছে। এ ছাড়া সেখানে প্রচুর বিস্ফোরক আছে।’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আজ দেশের সেরা দৈনিক প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে  দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, প্রাণহানি যাতে না ঘটে, সে জন্য সেনাবাহিনী সময় নিচ্ছে। তারা কোনো ঝুঁকি নিচ্ছে না।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এসব ঘটনা সিরিয়াস কিছু নয়। আমাদের কাছে আগেই গোয়েন্দা তথ্য ছিল যে ওই বাড়িতে জঙ্গি আছে। সেই তথ্যের ভিত্তিতে তদন্ত করতে গিয়েই এই আস্তানা খুঁজে পেয়েছে। এরপরই আমরা অভিযান পরিচালনা করেছি।’
মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা তো সব সময় বলেছি, জঙ্গি আছে। তবে জঙ্গি নির্মূলে আমরা কাজ করছি। ইতিমধ্যে আমরা অনেক আস্তানা গুঁড়িয়ে দিয়েছি। এর মধ্যে দু-একজন বের হয়ে গেছে। এরা নতুন কেউ নয়, সবই পুরোনো জঙ্গি। এদের কাউকে আমরা ছাড়ব না।’
গতকালের বোমা বিস্ফোরণ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘পুরো অভিযানই সেনাবাহিনী চালাচ্ছে। উৎসুক জনতা দাঁড়িয়ে ছিল, সেখানে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটে। পরে পুলিশ দৃশ্যমান কিছু দেখে এগিয়ে যায়।’
এর আগে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সামনের সড়কে পুলিশ চেকপোস্টের কাছে ঘটনার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘একজন লোক বোমা বহন করছিল, পুলিশ এটা চ্যালেঞ্জ করেছে। তবে এটা আত্মঘাতী নয়। আমরা ইতিমধ্যে তার পরিচয় জানতে পেরেছি। সব একই লাইনের লোক।’
আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘এই জঙ্গিরা শুরু থেকে ষড়যন্ত্রকারীদের সঙ্গে মিলে ষড়যন্ত্র করে আসছে। তবে আমাদের গোয়েন্দা বাহিনী শুরু থেকেই এ ব্যাপারে সচেতন। নিরাপত্তা বাহিনীর তৎপরতায় সব জঙ্গি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আমরা কোনো জঙ্গিকে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে দিইনি, আর কোনো দিন দেব না।’
সিলেট মহানগরের দক্ষিণ সুরমায় জঙ্গি আস্তানায় সেনা অভিযানের মধ্যে গতকালের জঙ্গি হামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ ছয়জন নিহত হন। সাংবাদিক, পুলিশ, র‍্যাব সদস্যসহ আহত হয়েছেন ৫০ জন। হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)।