মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭

ওয়ালটনের নতুন চমক ‘স্মার্ট রেফ্রিজারেটর’

SONALISOMOY.COM
অক্টোবর ২৬, ২০১৭
news-image

নিজেস্ব প্রতিবেদক: আপনার বাসার রেফ্রিজারেটরটি কি বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী? এটি চালু রাখতে প্রতিদিন কী পরিমান বিদ্যুৎ খরচ হয়? পুরো মাসে এই রেফ্রিজারেটরটির জন্য মোট কত টাকা বিদ্যুৎ বিল আসলো এসব তথ্য কি আপনার জানা আছে? অনেকেই গৃহ পরিচারিকার হাতে বাসা-বাড়ির দায়িত্ব দিয়ে কর্মক্ষেত্রে আসেন। তখন কি জানতে পারবেন আপনার রেফ্রিজারেটরটি কেউ খুললো কী না? কিংবা এর কম্প্রেসার ঠিক আছে কী না তা জানবেন কী করে? এসব প্রশ্নের উত্তরে আপনার মুঠোফোনে যদি মেলে তবে কেমন হবে? নিশ্চয়ই ভালো!

এসব প্রশ্নের উত্তর মিলবে যদি আপনার ঘরে থাকে ওয়ালটনের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী স্মার্ট রেফ্রিজারেটর। এটি ইন্টারনেট অব থিংকস(আইওটি) চালিত রেফ্রিজারেটর। ওয়ালটন স্মার্ট রেফ্রিজারেটরে ব্যবহার করা হয়েছে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসার এবং সিএফসি এবং এইচএফসিমুক্ত সম্পূর্ণ গ্রিন আর৬০০এ গ্যাস। নন-ফ্রস্ট হওয়ায় এই রেফ্রিজারেটরের মধ্যে কোনো বরফ জমবে না। য়ালটনের ফ্রিজ গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের প্রকৌশলীরা জানান, ওয়ালটন স্মার্ট রেফ্রিজারেটর কন্ট্রোল বোর্ডে আইওটি ডিভাইস হিসেবে যুক্ত করা হয়েছে ওয়াইফাই মডিউল। এর মাধ্যমে গ্রাহকের বাসায় ব্যবহৃত ওয়াইফাই ইন্টারনেট কানেকশনের আওতায় আসবে ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর।

রেফ্রিজারেটরটি পরিচালনা করতে গ্রাহককে তার মুঠোফোনে ‘ওয়ালটন স্মার্ট অ্যাপ্লায়েন্সেস’ নামে একটি বিশেষ অ্যাপ ইনস্টল করে নিতে হবে। ইন্টারনেট ব্যবহার করে এই বিশেষ অ্যাপের মাধ্যমে রেফ্রিজারেটর অপশন সিলেক্ট করে গ্রাহক বিশ্বের যেকোন প্রান্ত থেকেই জানতে পারবেন তার বাসায় ব্যবহৃত ওয়ালটন স্মার্ট রেফ্রিজারেটরে প্রতিদিন ও মাসিক কত ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ হচ্ছে ও মোট কত টাকা বিদ্যুৎ বিল আসছে। পাশাপাশি গ্রাহক সহজে জানতে পারবেন- রেফ্রিজারেটরের পাওয়ার অন না অফ আছে; কম্প্রেসার চালু না বন্ধ রয়েছে। এমনকি রেফ্রিজারেটরটির দরজা খোলা আছে নাকি বন্ধ আছে তাও জানা যাবে।

গ্রাহকের ঘরে ব্যবহৃত ওয়ালটনের এই স্মার্ট রেফ্রিজারেটরে বিদ্যুতের ভোল্টেজ লো, হাই অথবা ওভারলোড হলে গ্রাহকের মুঠোফোনে সঙ্গে সঙ্গে নোটিফিকেশন চলে যাবে। এতে করে, গ্রাহক তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা নিতে পারবেন। ওয়ালটন ফ্রিজ আরঅ্যান্ডডি রেফ্রিজারেশন-ইলেকট্রনিক্স বিভাগের ইনচার্জ আব্দুল মালেক সিকদার বলেন, বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউট (বিএসটিআই) কর্তৃক নির্ধারিত মানদন্ড ‘বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস ১৮৫০:২০১২’ অনুসরণ করে আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখে তৈরি করা হচ্ছে ওয়ালটন স্মার্ট রেফ্রিজারেটর। ফলে, বাংলাদেশে একমাত্র ওয়ালটন স্মার্ট রেফ্রিজারেটরে মিলেছে ‘ফাইভ স্টার’ এনার্জি রেটিং।

ওয়ালটন স্মার্ট রেফ্রিজারেটরে সংযোজন করা হয়েছে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসার। ফ্রিজের কম্প্রেসারে ব্যবহার করা হয়েছে সিএফসি এবং এইচএফসি গ্যাসমুক্ত সম্পূর্ণ পরিবেশবান্ধব আর৬০০এ রেফ্রিজারেন্ট। এছাড়াও রেফ্রিজারেটরে রয়েছে এলইডি লাইট। ফলে ওয়ালটনের স্মার্ট রেফ্রিজারেটরে বিদ্যুৎ সাশ্রয় হবে ৫০ শতাংশেরও বেশি।

১৮ থেকে ২০ অক্টোবর রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজন করা হয়েছিল বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৭। এই প্রদর্শনীতে ওয়ালটন তাদের এই স্মার্ট রেফ্রিজারেটর প্রদর্শন করে। সেখানকার ওয়ালটনের বিক্রয়কর্মী সৈয়দ বদরুদ্দোজা ইমন বলেন, ‘প্রদর্শনীতে আগত দর্শনার্থীরা ওয়ালটনের স্মার্ট রেফ্রিজারেটরের সম্পর্কে খোঁজ খবর নিয়েছেন। তারা এটি আগ্রহ প্রকাশও করেছেন। ওয়ালটনের ওই বিক্রয়কর্মী জানান, ওয়ালটনের এই স্মার্ট রেফ্রিজারেটরের দাম হবে ৫০ হাজার টাকার মধ্যেই। শিগগিরই এগুলো বাজারে পাওয়া যাবে।

এ জাতীয় আরও খবর