বুধবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ডিজিটাল স্বাস্থ্য সেবার প্রসারে রবি ও মিলভিক’র উদ্যোগ

SONALISOMOY.COM
মে ১২, ২০১৮
news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক: গ্রাহকদের স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করতে মিলভিক বাংলাদেশের সাথে যুক্ত হয়েছে দেশের শীর্ষ ডিজিটাল সেবা প্রদানকারী কোম্পানি রবি আজিয়াটা লিমিটেড। এর আওতায় আজ রাজধানীর মিরপুরে স্থানীয় বাসিন্দাদের জন্য একটি কমিউনিটি স্বাস্থ্যসেবা সচেতনতা বিষয়ক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে রবি’র ডিজিটাল স্বাস্থ্যসেবা প্যাকেজ ‘মাইহেলথ’। এসময় মাইহেলথ’র হেলথকেয়ারের প্যাকেজ অনুযায়ী ৩০ জন গ্রাহকের হাতে চেক হস্তান্তর করে অপারেটরটি।

 

অনুষ্ঠানে রবি’র হেড অব এন্টারপ্রাইজ বিজনেস মো. আদিল হোসেন, সেন্ট্রাল সাউদার্ন ক্লাস্টার’র ক্লাস্টার মার্কেট ডিরেক্টর নাজির আহমেদ, বিজনেস অপারেশনস’র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. মাহবুবুল আলম ভূঁইয়া, ভয়েস অ্যান্ড ভাস’র জেনারেল ম্যনেজার রিজওয়ানা রশিদ অনি এবং মিলভিক বাংলাদেশ’র কান্ট্রি ম্যানেজার আকিরা মোরিতা উপস্থিত ছিলেন।

 

দিনব্যাপী এই আয়োজনে মোট ৪৫ জন চিকিৎসক ও পুষ্টিবিদ অনুষ্ঠানে অংশ নেন। উপস্থিত স্থানীয় বাসিন্দাদের মোট দশটি সেবাকেন্দ্র থেকে স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ক পরামর্শ দেয়া হয়। স্বাস্থ্য সচেতনতা ক্যাম্পের পাশাপাশি স্থানীয় জনগণ রবি’র ‘মাই হেলথ ফ্যামিলি প্যাক’র সম্পর্কেও জানার সুযোগ পান।

 

এ ক্যাম্প থেকে প্যাকেজটির আওতায় কীভাবে টেলি-ডক্টর পরামর্শ এবং হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে ক্যাশ-ব্যাক সুবিধা পাওয়া যায় এ সম্পর্কে জানেন তারা। অসুস্থতার ক্ষেত্রে আর্থিক সুরক্ষা নিশ্চিত করাই এ প্যাকেজের উদ্দেশ্য। মিলভিকের মোবাইল-ভিত্তিক ডিজিটাল সেবার কল্যাণে রবি ও এয়ারটেলের গ্রাহকরা খুব সহজে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সেবাটি গ্রহণ করতে পারবেন।

 

প্রতি মাসে মাত্র ৬০ টাকা ব্যয়ে হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত ক্যাশ ব্যাক অফার উপভোগ করতে পারবেন গ্রাহকরা। পাশাপাশি ২১২১৬ কোডটিতে ডায়াল করে নিজে ও তাদের পরিবারের সদস্যদের জন্য মানসম্পন্ন চিকিৎসকদের কাছ থেকে পরামর্শ গ্রহণ করতে পারবেন বীমাকারীরা। ইসলামী লাইফ ইনস্যুরেন্সের মাধ্যমে হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে ক্যাশব্যাক সুবিধা দেয়া হয়।

 

মিলভিক বাংলাদেশ’র কান্ট্রি ম্যানেজার আকিরা মরিটা বলেন,“এ আয়োজনটি সফল হওয়ায় এবং বাংলাদেশের জনগণের জন্য আর্থিক ও স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের সুযোগ পেয়ে আমরা আনন্দিত। মানসম্পন্ন স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ অনেকের জন্যই সম্ভব হয়না। অনেক ক্ষেত্রে হাসপাতালে কয়েক রাত ভর্তি থাকতে হলে তাদের স্বাস্থ্যগত সমস্যার পাশাপাশি আর্থিক সংকটেরও মুখোমুখি হতে হয়। আজকের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আর্থিক সহায়ক হিসেবে বীমার গুরুত্ব তুলে ধরার পাশাপাশি সাশ্রয়ী স্বাস্থ্য ও বীমা সেবা সম্পর্কে সচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে কাজ করেছি আমরা। এ পদক্ষেপের ফলে জনসাধারণের স্বাস্থ্যের পাশাপাশি ভবিষ্যতের আর্থিক নিরাপত্তাও দৃঢ় হবে।”

 

রবি’র বিজনেস অপারেশনস’র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. মাহবুবুল আলম ভূঁইয়া বলেন, “দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশে বীমা সুবিধা গ্রহণের প্রবণতা সবচেয়ে কম। এর ফলে অসুস্থতা ও দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে ঝুঁকিতে পড়েন জনসাধারণ। জনসাধারণকে সাথে নিয়ে এ আয়োজনের মাধ্যমে রবি ও এর সহযোগী মিলভিক বাংলাদেশ তাদের মাঝে আর্থিক নিরাপত্তা’র প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে ধারণা দিয়েছে। পাশাপাশি সাশ্রয়ী ও ব্যবহার-বান্ধব ডিজিটাল স্বাস্থ্য সেবা রবি মাই হেলথ প্যাকেজ’র সুবিধা সম্পর্কে তুলে ধরা হয়। ভবিষ্যতেও আমরা জনসাধারণদের নিয়ে এমন আয়োজন পরিচালনা করব।