সোমবার, ২১ জানুয়ারি, ২০১৯

‘দুই মাস’ সময় লাগবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের নিয়ন্ত্রণ আসতে

SONALISOMOY.COM
মে ১২, ২০১৮
news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ ‘বঙ্গবন্ধু-১’ মহাকাশে পৌঁছার পর সেটিকে পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আনতে লাগবে প্রায় এক মাস। এরপর কারিগরি বিভিন্ন বিষয় শেষ করে বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণে আসতে আরও এক মাস সময় লাগবে বলে ধারণা করছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

ফ্লোরিডার কেইপ কেনাভেরালের কেনেডি স্পেস সেন্টারের লঞ্চ প্যাড থেকে স্থানীয় সময় ১০ মে বিকাল ৪টা ১২ মিনিট থেকে ৬টা ২২ মিনিটের মধ্যে (বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টা ১২ মিনিট থেকে ৪টা ২২ মিনিট) কক্ষপথে রওনা হবে বঙ্গবন্ধু-১।

বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটকে নিয়ে মহাকাশের জিওস্টেশনারি ট্রান্সফার কক্ষপথে নিয়ে যাবে ফ্যালকন-৯ রকেটের ব্লক ৫ সংস্করণ।

উৎক্ষেপণের আগে জটিল এ প্রক্রিয়া সম্পর্কে ধারণা দিয়ে এর প্রকল্প পরিচালক মো. মেজবাহুজ্জামান এর আগে জানিয়েছিলেন, উৎক্ষেপণের দুটি ধাপ রয়েছে, প্রথম ধাপটি হল লঞ্চ অ্যান্ড আরলি অরবিট ফেইজ (এলইওপি) এবং দ্বিতীয় ধাপ হচ্ছে স্যাটেলাইট ইন অরবিট।

“এলইওপি ধাপে ১০ দিন এবং পরের ধাপে ২০ দিন লাগবে। এ হিসেবে নিয়ন্ত্রণে আসতে লাগবে প্রায় এক মাস।”

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের জন্য গাজীপুর ও বেতবুনিয়ায় নির্মিত হয়েছে গ্রাউন্ড স্টেশন।

স্যাটেলাইট উন্মুক্ত হওয়ার পর প্রাথমিকভাবে নিয়ন্ত্রণ যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি এবং কোরিয়ার তিনটি গ্রাউন্ড স্টেশনে চলে যাবে জানিয়ে মো. মেজবাহুজ্জামান বলেছেন, এই তিন স্টেশন থেকে স্যাটেলাইটটিকে নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে এর নিজস্ব কক্ষপথে (১১৯.১ পূর্ব দ্রাঘিমাংশে অরবিটাল স্লট) স্থাপন করা হবে।

স্যাটেলাইটটি সম্পূর্ণ চালু হওয়ার পর এর নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের গ্রাউন্ড স্টেশনে হস্তান্তর হতে আরো এক মাস সময় লেগে যাবে বলে জানান মো. মেজবাহুজ্জামান।

প্রস্তুত গাজীপুরের গ্রাউন্ড স্টেশন

বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পর এর নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণে আসতে দুই মাসের মতো সময় লাগলেও এরই মধ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে গাজীপুরের গ্রাউন্ড স্টেশনটি।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের তেলীপাড়ায় টেলিযোগাযোগ স্টাফ কলেজ সংলগ্ন এলাকায় স্থাপিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রাইমারি গ্রাউন্ড স্টেশন।

গ্রাউন্ড স্টেশনটি শিগগিরই উদ্বোধন করা হবে জানিয়ে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর বলেন, একই ধরনের আরেকটি গ্রাউন্ড স্টেশন চট্টগ্রামের বেতবুনিয়ায় স্থাপন করা হলেও সেটি গাজীপুরে স্থাপন করা গ্রাউন্ড স্টেশনের বিকল্প।

“মূল নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র হবে গাজীপুরের গ্রাউন্ড স্টেশন।”