রবিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৮

হারিয়ে যাচ্ছে শত শত বাংলা সিনেমা

SONALISOMOY.COM
মে ১৮, ২০১৮
news-image

বিনোদন ডেস্ক : বাংলা সিনেমার একটা সোনালী অতীত ছিল। ছিল ছবির গুণগত মানও। সেই ক্লাসিক্যাল যুগ পেরিয়ে আধুনিক সময়ে পা রেখে বাংলা চলচ্চিত্র। তবে বাস্তবে সিনেমার চিন্তায়-কাহিনীতে আধুনিকতার যথার্থ লক্ষণ এখনও ফুটে ওঠেনি। উল্টো মর্ডানিটির নামে হরহামেশাই নানা নকল কাহিনী, ধার করা চিন্তা আর অশ্লীলতার মহড়া দেখা যায়।

সাম্প্রতিক এক জরিপে দেখা গেছে, যথাযথ সংরক্ষণের অভাবে হারিয়ে গেছে ৮ শতাধিক বাংলা সিনেমা। সংগ্রহে থাকলেও অযত্নে-অবহেলায় নষ্ট হয়ে গেছে বেশকিছু জননন্দিত সিনেমার প্রিন্ট। দায়টা নিজেদের কাঁধে নিয়েই এবার ঘুরে দাঁড়াচ্ছে বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ।

জানা গেছে, সংরক্ষণের অভাবে হারিয়ে গেছে কসাই, মাটির পাহাড়, চান্দা ও রাজধানীর বুকেসহ ৮ শতাধিক সিনেমা। বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভে যে আড়াই হাজার বাংলা সিনেমা সংরক্ষিত রয়েছে এরমধ্যে বেশকিছুর প্রিন্টের অবস্থাও নাজুক।

বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ মহাপরিচালক শচীন্দ্র নাথ হালদার বলেন, ‘এর দায় ফিল্ম আর্কাইভেরও আছে। ভাল অবস্থায় তারা ফিল্ম আর্কাইভের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা অত ভাল না থাকার ফলে এগুলো হয়েছে।’

তবে ১৯৭৮ সালে যাত্রা শুরু করা ফিল্ম আর্কাইভ বহু সংকট-সীমাবদ্ধতা ও অনাদর-অবহেলা পেরিয়ে এখন স্থায়ী ভবনে আধুনিক সংরক্ষণ প্রযুক্তিতে অনেকটাই স্বয়ংসম্পূর্ণ। এখানে পুরাতন চলচ্চিত্রগুলোর রিলের মানোন্নয়নসহ ডিজিটাল ফরম্যাটে রূপান্তর করা হচ্ছে। পাশাপাশি পুরনো ফিল্মগুলো আন্তর্জাতিক মানের ৬টি পৃথক ভল্টে সংরক্ষণ করা হচ্ছে।

শচীন্দ্র নাথ হালদার বলেন, ‘আমরা আশা করি, নতুন একটা ছবি যদি আমরা সংরক্ষণ করি, তবে তা ৫০০ বছর পরেও ভাল থাকবে। আর্কাইভকে গতিশীল করতে ইতোমধ্যেই জনবল কাঠামোতে ৫০টি নতুন পদ অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।’