সোমবার, ১৮ জুন, ২০১৮

উত্তরের ৯৪ওয়ার্ডকে মাদক মুক্ত হিসেবে গড়ে তুলতে চান, জালাল দেওয়ান

SONALISOMOY.COM
জুন ১০, ২০১৮
news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ ঢাকা মহানগর উত্তরের ৯৪ওয়ার্ডের আহ্ববায়ক জালাল দেওয়ান তিনি মাদক স্পট গুলোকে বন্ধ করে খুব শিগরই আইন’র সহযোগীতা নিয়ে ইয়াবা নির্মূল এবং আদর্শ ওয়ার্ড হিসাবে পরিনত করতে চান। তিনি রাজনীতির আগামীর পরিকল্পানা নিয়ে অনেক কথাই জানান, সোনালী সময়’র প্রতিবেদকে।

সোনালী সময়: রাজনীতিতে আাসা হয় কার হাত ধরে?
জালাল দেওয়ান: আমি ছোট বেলা হতে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ইসমাইল ভায়ের হাত ধরে মাথায় নিয়ে রাজনীতি শুরু হয়। বর্তমানে তিনি যুবলিগ এর ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে আছি।

সোনালী সময় : আপনার ওয়ার্ডের সমস্যাগুলো নিয়ে যদি বলতেন?
জালাল দেওয়ান: ওয়ার্ড এ সবচেয়ে বড় সমস্যা হল দলীয় কোন্দাল, ওয়ার্ড পানির সমস্যা রয়েছে, রাস্তার কিছু কাজ ও বাকী, এগুলি খুব শিগরই সমাধান হলে একটি আদর্শ ওয়ার্ড হিসাবে পরিনত হবে।

সোনালী সময়: মাদক নির্মূলে নিয়ে কোন পরিকল্পনা আছে কি?
জালাল দেওয়ান: আমি এই ওয়ার্ডের সকল মাদক স্পট গুলোকে বন্ধ করেছি। ইয়াবা একটু ছড়িয়ে পড়েছে ঘরে ঘরে তবে আমরা এই অভিযানের মধ্য দিয়ে খুব শিগরই আইন এর সহযোগীতায় নির্মূল করব।

সোনালী সময়: বর্তমান কমিশনা’র কাছ থেকে কতটুকু সহযোগীতা পেয়েছেন?
জালাল দেওয়ান: কমিশনার আমাদেরকে যথেষ্ট সাহায্য সহযোগীতা করেছে । সে মানুষ হিসাবে ভাল তার উদ্যামী ভাবটা ধরে রেখে কাজ করে যেতে পারলে ভাল কীছু দেশকে দেওয়া সম্ভব।

সোনালী সময়: আগামী নির্বাচন নিয়ে আপনার কি ভাবনা?
জালাল দেওয়ান: আমি মনে করি আগামী নির্বাচন এ আওয়ামীলীগ আবার ও জয় লাভ করবে।দেশ রত্ন শেখ হাসিনা সরকার এর মাধমে আজ বাংলাদেশ মধ্যমা আয়েরদেশ হিসাবে পরিণত হয়েছে এ সরকার এর আমলে বিদ্যুৎত উতপাদন বাড়িয়েছে। আজ শহর ও গ্রামের মা বোনেরা নিরাপদ এ চলতে পারে। বেকারদের কর্ম সংস্থান তৈরী করেছে। আজ প্রতেক গ্রামে লেখাপড়ার জন্য স্কুল কলেজ মাদ্রাসা রয়েছে অনেক। গরীব ও মেধাবী সন্তানদের জন্য বৃত্তির সু ব্যবস্থা রয়েছে।শেখ হাসিনা সরকারের সাহসিকতায় আজ পদ্মাসেতু নিজস্ব অর্থায়নে তৈরী সম্ভব হয়েছে।বিভিন্ন ফ্ল্যাইওভার রাস্তা নির্মান সম্ভব হয়েছে । আজ স্বপ্নের মেট্রোরেলের কাজ চলছে বাংলাদেশকে স্বপ্নের মত করে সাজানো সম্ভব একমাত্র আওয়ামীলীগ সরকার এর মাধ্যমে আজ সভ্য জাতি হিসাবে বিশ্বের দরবারে পরিচিত লাভ করেছে। লাখ লাখ রোহিঙ্গাদের আজ বাসস্থান, খাদ্য,চিকিৎসা সুনিশ্চিত করেছে। আমরা তাকে মানবতার মা হিসাবে সমর্থন করি আমদের জয় এর ধারা অব্যাহত থাকবেই।

সোনালী সময়: দলের কাছে আপনার প্রতাশা কি?
জালাল দেওয়ান: দলের প্রতি প্রতাশা হল এ সমাজ ও গন মানুষের পাশে থাকতে চাই মানুষের সেবা করতে চাই। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে পুজি করে কাজ করে যেতে চাই.

এ জাতীয় আরও খবর