মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৮

বিমানে করে পায়ুপথে ইয়াবা পাচার করতেন শিক্ষক ইদ্রিস

SONALISOMOY.COM
জুলাই ২৯, ২০১৮
news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকা থেকে আবু মোসলেম উদ্দিন ওরফে ইদ্রিস (৪৫) নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করেছে র‌্যাব-১১ সদস্যরা। শুক্রবার রাতে ওই শিক্ষককে আটকের পর স্থানীয় এক ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে নিয়ে গেলে তার পেট থেকে ২৪০০ পিস উদ্ধার করা হয়।

তিনি কক্সবাজার জেলার মহেশখালী থানার মনু মিয়ার পাড়া এলাকার রশিদ সওদাগরের ছেলে। সে শাহপরীর দ্বিপের একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেন। শনিবার দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীর র‌্যাব-১১ কার্যালয়ের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জসিম উদ্দীন চৌধুরীর পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানায়।

প্রেস বিজ্ঞপিতে র‌্যাব জানায়, গত রমজান মাসে মাদক বিরোধী অভিযানে গ্রেফতার হওয়া এক মাদক কারবারির কাছ থেকে ইদ্রিস মাস্টারের ব্যাপারে তথ্য পাওয়া যায়। সেখানে আমরা জানতে পারি ইদ্রিস মাস্টার কক্সবাজারের শাহপরীর দ্বিপে একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেন।

তিনি সেখান থেকে অভিনব কায়দায় পেটের ভেতরে করে ইয়াবা নিয়ে আসেন। তিনি কক্সবাজার থেকে ঢাকায় আকাশ পথে যাতায়াত করেন। শুক্রবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি ইদ্রিস মাস্টার বিমান যোগে কক্সবাজার থেকে ঢাকা আসছে। পরে র‌্যাব-১১ এর একটি দল তাকে আটক করতে প্রথমে ঢাকা বিমানবন্দরে অবস্থান নেয়। ইদ্রিস বিমানবন্দর থেকে বের হয়ে নারায়ণগঞ্জের দিকে যাচ্ছে এই খবর জানতে পেরে র‌্যাবও তাকে নজরদারি করতে থাকে। পরে তাকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড় থেকে আটক করা হয়।

প্রাথমিকভাবে তার দেহ তল্লাশী করে ইয়াবার কোন অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। পরে র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেন তিনি পায়ুপথে ইয়াবা বহন করেন। রাতেই স্থানীয় এক ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে নিয়ে গেলে সেখানে তার পেট থেকে তিনটি ডিম্বাকৃতি ইয়াবার প্যাকেট বের করা হয়। সেখান থেকে ২ হাজার ৪০০ পিছ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে ইদ্রিস আরো জানায়, এপর্যন্ত তিনি ২০ থেকে ২৫ বার এ পদ্ধতিতে ইয়াবা বহন করে নিয়ে এসেছেন। প্রতি পিছ ইয়াবার জন্য তাকে ১৩ টাকা করে দেওয়া হতো। সেই অনুপাতে এবারের চালানে তার আয় ৩১ হাজার ২০০ টাকা। প্রতিমাসে সে ৪/৫ বার ইয়াবা নিয়ে যাতায়াত করে থাকে বলে জানায় র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।