রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮

বাগমারায় নিহত যুবলীগ নেতার পরিবারের দায়িত্ব নিলেন এমপি এনামুল হক

SONALISOMOY.COM
ডিসেম্বর ৩, ২০১৮
news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর বাগমারায় মনোনয়ন বিরোধকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে নিহত যুবলীগ নেতা চঞ্চল কুমারের পরিবারের ব্যয়ভার বহনের ঘোষণা দিয়েছেন এমপি প্রকৌশলী এনামুল হক। নিহত চঞ্চলের বাড়িতে যান এমপি এনামুল হক।

সকাল ১০টার দিকে নিহত যুবলীগ নেতা চঞ্চলের বাড়ি তাহেরপুর পৌরসভার জেলেপাড়া মহল্লায় যান এমপি এনামুল হক। এসময় তিনি চঞ্চলের স্ত্রী শ্রমতী টপি রাণীসহ পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেন।

চঞ্চলের দুই বছরের পুত্র সন্তান গুঞ্জনকে কোলে তুলে নেন এবং আদর করেন। এমপি এসময় পরিবারের সদস্যদের আর্থিক ব্যয়ভার বহনের আশ্বাস দেন এবং নগদ ১ লাখ ২০ হাজার টাকা প্রদান করেন।

এসময় এমপি এনামুল হক বলেন, চঞ্চলের মৃত্যুতে আমি শোকাহত। আমি এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এ ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্তদের আটক করে বিচারের কাঠগোড়ায় দাঁড় করানোর জন্য ইতোমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছি। আর নিহত চঞ্চলের স্ত্রী টপি রাণীকে এনাগ্রুপে চাকরি দেয়া হবে। অচিরেই তিনি এনাগ্রুপে ভালো বেতনে যোগদান করবেন।

তিনি আরো বলেন,আমি খুনের রাজনীতি করিনা। আমি আওয়ামীলীগ সরকারের ১০ বছর ধরে বৃহতম বাগমারার সাংসদ সদস্য হয়ে রয়েছি। আমার দারার কারো ক্ষতি হয়েছে এমন কেউ বলতে পারবে না। আজ শান্তির বাগমারায় যারা চঞ্চল কুমারকে হত্যা করে যে ত্রাস ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছে তারই বিচার করা হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন,জেলা আ’লীগের সহ সভাপতি অনিল কুমার সরকার, উপজেলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক গোলাম সারওয়ার আবুল, সহ-দপ্তর সম্মপাদক নুরুল ইসলাম, তাহেরপুর পৌর আ’লীগের সভাপতি আবু বাক্কার মৃধা মুনসুর, ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তাপস কুমার দাস, পিন্টু, নিহত যুবলীগ নেতা চঞ্চলে ভগ্নিপুত অনুপ সরকারসহ আ’লীগ অংগ সহযোগি সংগঠনের দলীয় নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।

এদিকে, তাহেরপুরের নিহত যুবলীগ নেতার ভাই অমল কুমার এ ঘটনায় রোববার রাতে নয়জনকে আসামী করে বাগমারা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে যুবলীগ নেতা চঞ্চল নিহতের ঘটনায় সম্পৃক্তদের আটকের জন্য পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাগমারা থানার ওসি নাছিম আহম্মেদ। তিনি বলেন, মামলা দায়ের হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে আসামীদের নাম বলছি না। তবে তাদের আটকের জন্য পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম মাঠে সক্রিয় রয়েছে। আশা করছি, অচিরেই তাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

প্রসঙ্গত, শনিবার দুপুর ১২টার দিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষের সময় তাহেরপুর পৌরসভা যুবলীগের সহসভাপতি চঞ্চল কুমার ছুরিকাঘাতে আহত হলে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি বিকাল চারটায় মৃত্যুবরণ করেন।