সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯

বাগমারায় জেএমবি ক্যাডার মান্নান গ্রেফতার

SONALISOMOY.COM
ডিসেম্বর ২৩, ২০১৯
news-image

বাগমারা প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার গোয়ালাকান্দী ইউনিয়নের কনোপাড়া গ্রামের জেএমবি ক্যাডার আব্দুল মান্নান (৫২) কে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার ২৩ ডিসেম্বর, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে তাহেরপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই লুৎফর রহমান তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে কনোপাড়া গ্রামের সবসার দিঘিরপাড় এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

এসআই লুৎফর রহমান জানান, মান্নান গত ২১ ডিসেম্বর তেলিপুকুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে জাম্বুকে রাস্তায় পথরোধ করে মারপিটের ঘটনার মামলার এক নম্বর আসামী।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ২১ ডিসেম্বর তেলিপুকুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে জাম্বু (৩৫) কে মির্জাপুর থেকে কনোপাড়া যাওয়ার পথে জেএমবি ক্যাডার মান্নান সহ আশরাফুল, বিদ্যুৎ, হিটলার মিলে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে। এ ঘটনায় বাগমারা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। ঐ মামলায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, জেএমবি আব্দুল মান্নানের বিরুদ্ধে আদালতে জেএমবি’র একাধিক মামলা চলমান রয়েছে। তারই ধারাবাহিকাতয় সবসার দিঘী ও পুকুরে লীজ গ্রহীতা মকছেদ আলীর নিকট জেএমবি মান্নানের ছেলে সাদ্দাম হোসেন দুই লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে।

পুকুর মালিক তাদের ওই দাবীকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় চলতি মাসের ৫ ডিসেম্বর সেখানে রাতের আঁধারে বিষ প্রয়োগের ঘটনা ঘটায়। সূত্র মতে, ক্যাডার মান্নানের ছেলে সাদ্দাম হোসেন মাইক্রো যোগে রাজশাহী শহর থেকে ভাড়াটে ক্যাডার বাহিনী এলাকায় এনে ভয়ভীতি চাঁদাবাজি ও আতংকের সৃষ্টি করে।

খবর পেয়ে বাগমারা থানা পুলিশ এলাকায় আসার আগেই তারা ভিন্ন রাস্তা দিয়ে সিটকে পড়ে। নির্যাতিত আওয়ামীলীগ নেতা মোকছেদ আলী জানান, তাকে জেএমবি মান্নান গং অব্যাহত প্রান নাশের হুমকি দিচ্ছে।

যে কারনে আমি প্রান ভয়ে ঘর বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে রয়েছি। ক্যাডাররা যে কোন সময় আমার উপর আক্রমন করতে পারে। এসব ব্যাপারে বাগমারা থানায় মামলা ও জিডি করা হলেও মূল আসামি ও হুমকি দাতাদের এখন পর্যন্ত পুলিশ গ্রেফতার করেনি।

এসব ঘটনার জের ধরে মোকছেদ এর অনুসারী জাম্বুকে পিটিয়ে আহত করা হয়।