রবিবার, ১৩ জুন, ২০২১

রাজশাহী সিটি সেন্টারে দোকানঘর হস্তান্তর করলেন এমপি এনামুল হক

SONALISOMOY.COM
ডিসেম্বর ২৭, ২০২০
news-image

বাগমারা প্রতিনিধি: রাজশাহী নগরীর প্রাণকেন্দ্র সোনাদীঘি মোড়ে অবস্থিত উত্তরবঙ্গের অভিজাত বহুতল মাল্টিকমপ্লেক্স মার্কেট সিটি সেন্টারের দ্বিতীয় তলার কসমেটিকস্ ফ্লোরের চারটি দোকান ক্রেতাদের কাছে আনুষ্ঠানিক ভাবে হস্তান্তর করা হয়েছে।

শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) দুপুরে ব্যবসায়ীদের নিকট চারটি দোকানঘর হস্তান্তর করেন সিটি সেন্টারের সত্ত্বাধীকারী রাজশাহী-৪(বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দৈনিক আমাদের রাজশাহী পত্রিকার সম্পাদক ও বিশিষ্ট সাংবাদিক আফজাল হোসেন, নির্মাণাধীন মার্কেট সিটি সেন্টারের প্রজেক্ট ম্যানেজার আফসারি, প্রজেক্টের চীফ ইঞ্জিনিয়ার সুলতানুল ইসলাম, এনা প্রপ্রার্টিজ রাজশাহী শাখার রিজিওনাল ম্যানেজার সারোয়ার জাহান। উক্ত সিটি সেন্টারে দোকানের পজিশন হাতে পেয়ে পজিশন ক্রেতারা অভিভূত হয়েছেন।

রবিবার (২৭ ডিসেম্বর) দ্বিতীয় ধাপে আরো কিছু দোকান পজিশন ক্রেতাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান মার্কেট কর্তৃপক্ষ। সর্বমোট ১৮টি দোকান ছাড়াও উক্ত ফ্লোরে রয়েছে ব্যাংকের দুটি এটিএম বুথ।

সিটি সেন্টারের দ্বিতীয় তলায় দোকানের পজিশন ক্রেতা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর আব্দুল্লাহ আনসারি বলেন, দোকানের চুক্তিপত্র হাতে পেয়ে খুব ভাল লাগছে। তিনি ১১৭ নাম্বার দোকান কিনেছেন। তিনি সিটি সেন্টারের মতো অভিজাত একটি মার্কেটে দোকানের পজিশন কিনতে পেরে গর্ব বোধ করছেন। কারণ, এমন একটি মাল্টিকমপ্লেক্স মার্কেটে দোকানের পজিশন কিনতে পারাটা অনেক ভাগ্যের বিষয় বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

অবসরপ্রাপ্ত সরকারি চাকুরিজীবি গোলাম কবীর কিনেছিলেন ১১৮ নম্বর দোকান। তিনিও সিটি সেন্টারের মতো অভিজাত একটি বহুতল মার্কেটে দোকানের পজিশন কিনতে পেরে অভিভূত হয়েছেন। মিলন হোসেন কিনেছেন ১৩৮ স্কয়ার ফিটের একটি দোকান। পজিশন ক্রেতা মিলন বলেন, এতো সুন্দর একটি পরিবেশে দোকান কিনে নিশ্চিন্তে ব্যবসা পরিচালনা লাভ হবে বলেই তিনি বিশ্বাস করেন।

সিটি মার্কেটের দ্বিতীয় তলার কসমেটিকস্ ফ্লোরে রয়েছে সর্বমোট ১৮টি দোকানসহ দুটি ব্যাংকের বুথ। সর্বনিম্ন ৯৫ স্কয়ার ফিটের দোকানসহ রয়েছে সর্বোচ্চ ১৮৪ স্কয়ার ফিটের মতো বিশালাকার দোকানও। সেন্ট্রাল এসি সম্বলীত বহুতল মাল্টিকমপ্লেক্স মার্কেটটির উপরে নির্মাণ করা হবে চোরস্টার প্লাস মানের অত্যাধুনিক হোটেল। পাশেই তৈরি করা হচ্ছে নয়নাভিরাম আলোক সজ্জিত চমৎকার লেক। এছাড়াও থাকবে অত্যাধুনিক জিম রুম, থাকবে বলিং কোর্ট, তৈরি করা হবে অত্যাধুনিক সিনেপ্লেক্সসহ অন্যান্য সব অত্যাধুনিক সেবা। দেশের সুপ্রতিষ্ঠিত এনা গ্রুপ এবং রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের যৌথ মালিকানায় নির্মাণ করা হচ্ছে অত্যাধুনিক এই সিটি সেন্টার।